খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদপাহাড়ের সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

এক বছরেও শেষ হয়নি খাগড়াছড়িতে ৭ হত্যাকান্ড তদন্ত কার্যক্রম

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: ২০১৮ সালের ১৮ আগস্ট খাগড়াছড়ি সদরের স্বণির্ভর বাজার ও পেরাছড়ায় পৃথক পৃথক সংগঠিত সেভেন ম্যাডারের এক বছরেও তদন্ত শেষ করতে পারেনি পুলিশ। জীবনের ঝুঁকি ও বিচারে দীর্ঘসূত্রতার কারণে এমন নির্মম হত্যাকান্ডের ঘটনায় পরিবার ও সংগঠনের কেউ মামলার বাদী হয়নি। অজ্ঞাত ১৫-২০ জনকে আসামী করে পুলিশের করা হত্যা মামলার তদন্ত করছে চট্টগ্রাম বিভাগের পিবিআই।

খাগড়াছড়ির পুলিশ সুপার আহমার উজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় নিহতদের স্বজনরা বাদি না হওয়ায় পুলিশের উপ-পরিদর্শক গৌতম চন্দ্র দে বাদি হয়ে অজ্ঞাত ১৫-২০ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করে। খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ থেকে অধিকতর তদন্তের স্বার্থে মামলাটি চট্টগ্রাম পিবিআই এ প্রেরণ করা হয়। বর্তমানে মামলাটি তদন্তাধীন।

খাগড়াছড়ির জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, স্বণির্ভর হত্যাকা-ের ঘটনা প্রশাসনের গঠিত ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে আঞ্চলিক সংগঠনগুলোর অভ্যন্তরীণ কোন্দলে এই হত্যাকা- বলে জানানো হয়েছে। ভবিষ্যতে এই ধরণের ঘটনা রোধে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সক্ষমতা বৃদ্ধি, দূর্গম এলাকায় সড়ক নির্মাণসহ ৫টি সুপারিশ করা হয়। যার অধিকাংশ বাস্তবায়নের কাজ প্রক্রিয়াধীন ও কিছু চলমান। সিসিটিভি ফুটেজ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তদন্তের স্বার্থে অনেক কিছু বলা যাচ্ছে না।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ১৮ আগস্ট সকালে খাগড়াছড়ি সদরের স্বণির্ভর বাজারে ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের এক বিক্ষোভ সমাবেশের প্রস্তুতিকালে সন্ত্রাসীরা গুলি ছুঁড়ে ৬ জনকে ঘটনাস্থলে ও একজন দূরে পালানোর সময় পড়ে গিয়ে আঘাত পেয়ে মারা যায়। এ ঘটনায় ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপ সমর্থিত পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ খাগড়াছড়ি শাখার তৎকালীন সভাপতি তপন চাকমাসহ সংগঠনের ৪ নেতাকর্মী নিহত হয়। নিহত বাকী ৩ জন ছিল সাধারণ মানুষ।