খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদদীঘিনালাপাহাড়ের সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

চাঁদা না পাওয়ায় বাঘাইছড়িতে মালবাহী ট্রাকে আগুন দিয়েছে সন্ত্রাসীরা

খাগড়াছড়ি  প্রতিনিধি: রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়িতে মালবাহী ট্রাকে আগুন দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। ১০ জুন সোমবার ভোর ৬ টার দিকে বাঘাইছড়ি দিঘিনালা সড়কের রাবার বাগান নামক স্থানে অস্ত্রেরমূখে গাড়ী থামিয়ে চালক ও হেলপারকে নামিয়ে জঙ্গলে ডুকিয়ে পেট্রোল দিয়ে গাড়ীতে আগুন দেয় চার সন্ত্রাসী এসময় চারজনের হাতেই অস্ত্রছিলো বলে জানায় গাড়ীর হেলপার। এতে গাড়ীতে থাকা ১০ লক্ষ টকার মুদি মাল সহ সম্পূর্ণ ট্রাকটি ভষিভূত হয়। এতে প্রায় ২৫ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়।

ঘটনার পরপরই বাঘাইহাট জোনের সেনা সদস্য ও হাজা ছড়া  ৫৪ বিজিবির টহলদল ঘটনাস্থলে এসে চালক ও হেলপার কে উদ্বার করে আগুন নেভানোর চেষ্টা চালায় পরে দিঘিনালা ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট এসে আগুন নিয়ন্ত্রন করে। আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত্র ট্রাক মালিক বাঘাইছড়ি পৌরসভার সাবেক কমিশনার মোঃ আলী হোসেন বলেন, আমার গাড়ীতে পাহাড়ের আঞ্চলিক দল ইউপিডিএফ আগুন দিয়েছে আগুন দেয়ার পূর্বে শুকনা ছড়া নামক জায়গায় ১ হাজার টাকা চাঁদাও নিয়েছে তিনি বলেন আমি আওয়ামীলীগের রাজনীতি করি এটাই আমার বড় অপরাধ এইজন্য ইউপিডিএফ আমার গাড়ীতে আগুন দিয়েছে না হয় দুইটি গাড়ী একই সাথে আসছিলো একটি ছেড়ে দিয়ে আমার গাড়ীতে কেন আগুন দেবে।  বাজারের  ব্যাবসায়ী ও মালামাল পরিবহন মাঝি সাহাব উদ্দিন বলেন দীর্ঘদিন যাবত বাজারের ব্যাবসায়ীদের নিকট মোটা অংকের চাঁদা দাবী করে আসছিলো ইউপিডিএফ সন্ত্রাসীরা কিন্তু সময়মত চাঁদা না দেয়ায় রাস্তায় গাড়ী থামিয়ে অতিরিক্ত চাঁদা আদায় সহ নানা রকম হয়রানি করতো সন্ত্রাসীরা গত কিছুদিন পূর্বেও গাড়ী টিতে ঢিলছুড়ে গ্লাস ভেঙ্গে দেয় এবং আজকে সকালে গাড়ী টিতে আগুন দেয় এতে আমার দশ লক্ষ টকার মালামাল পুড়ে যায়।

এদিয় ঘটনার পর সিমানা জটিলতায় নানা বিভ্রান্তিমুলক তথ্য দিচ্ছে পুলিশ ঘটনার পর বাঘাইছড়ি থানার ওসি এমএ মঞ্জুর বলেন বিষয়টি আমি জেনেছি ইউপিডিএফ সন্ত্রাসীরা গাড়ী টিতে আগুন দিয়েছে ঘটনাস্থল সাজেক থানায় হওয়ায় সাজেক থানার ওসি দেখছেন বিষয়টি।

পরে সাজেক থানার ওসি নুরুল আনোয়ারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন আমি ক্যাম্পে আছি বিষয়টি আমাদের থানায় পড়েনি দিঘিনালা থানায় পড়েছে বলেন এবং সরেজমিনে গিয়ে দেখার পরামর্শ দেন।

এমন একটি বিষয় নিয়ে পুলিশের এমন বক্তব্যে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বাজারের ব্যাবসায়ী নেতারা, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাঘাইছড়ি থানার এক কর্মকর্তা বলেন ভাই আমরা যে কি অবস্থায় আছি তা আপনাদের দেখা উচিত আমাদের না আছে ভালো গাড়ী না আছে ভালো রাস্তা একটা ঘটনা ঘটলে আমরা কিভাবে দ্রুত ঘটনা স্থলে যাবো।  এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাবসায়ী ও সাধারণ জনগনের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে বাঙ্গালী সংগঠনের নেতা মোঃ আবছার উদ্দিন বলেন  অনতিবিলম্বে এসব পাহাড়ী সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে  সরকার প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা না নিলে সাধারণ জনগনকে পাশে নিয়ে আমরা দূর্বার আন্দোলন গড়ে তুলবো এই ঘটনার জন্য তীব্র নিন্দা জানান তিনি।