খাগড়াছড়িপাহাড়ের সংবাদমাটিরাঙ্গাশিরোনামস্লাইড নিউজ

মাটিরাঙ্গায় ৩ কন্যা সন্তানের জননীর রহস্যজনক মৃত্যু

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা পৌর এলাকার ৬ নং ওয়ার্ডের ডাক্তার পাড়া এলাকায় সালমা আক্তার(২৭) নামে এক স্কুল শিক্ষকের স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যূ হয়েছে।

সোমবার(৩০ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১ টায় ডাক্তার পাড়া এলাকায় নিজ বাসায় গলায় ফাঁসি দিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি।

নিহত সালমা আক্তার তিন কন্যা সন্তানের জননী। তার স্বামী মাটিরাঙ্গার পূর্ব খেদাছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।

স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, নিজ বাড়িতে সকালে গলায় ফাঁসি দিলে তার বাচ্চা দরজা খোলার জন্য কান্নাকাটি করলে পাশের বাড়ির লোকজন দরজা খুলে তাকে জুলানো থেকে নামিয়ে নিছে রাখে। পরে কয়েকজন মিলে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে হাসপাতালের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে।

মাটিরাঙ্গা হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাক্তার মিল্টন ত্রিপুরা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই ওনার মৃত্যু হয়েছে। আনার পর আমরা চেক করে দেখেছি ওনি বেঁচে নেই।

মৃত ব্যক্তির স্বামী মোহাম্মদ হোসেন লিটন জানান, আমার একটি কন্যা সন্তান হয়েছে একমাস আগে। এরপর থেকেই সে মানষিকভাবে সমস্যা হয়ে পড়েছে। এরপর তাকে ডাক্তার দেখিয়ে চিকিৎসা নিচ্ছে। এখন কেনো সে আত্মহত্যা করেছে তা আমি জানিনা।

মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ আলী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মৃত্যুর খবর পেয়ে পুলিশ হাসপাতালে গেছে। থানার কার্যক্রম শেষে ময়না তদন্তের জন্য খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে। ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে নিহতের লাশ হস্তান্তর করা হবে।