উপজেলা নির্বাচনখাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদচট্টগ্রাম সংবাদদীঘিনালাপাহাড়ের সংবাদরাঙ্গুনিয়াশিরোনামস্লাইড নিউজ

দীঘিনালায় উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী রাঙ্গুনিয়ার কাশেম

শান্তি রঞ্জন চাকমা, রাঙ্গুনিয়া: রাঙ্গুনিয়া উপজেলার সরফভাটা ইউনিয়নের মোহাম্মদ কাশেম খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন। এই পদে তিনি আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়ছেন। নির্বাচনে তিন প্রার্থীর মধ্যে তিনি অন্যতম জনপ্রিয় প্রার্থী বলে জানিয়েছেন দীঘিনালা উপজেলা আওয়ামীলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

সূত্রে জানা যায়, রাঙ্গুনিয়ার সাধারণ ঘরের সন্তান মোহাম্মদ কাশেম। উপজেলার সরফভাটা ইউনিয়নের পশ্চিম সরফভাটা এলাকায় তার বাড়ি। তাঁর পিতা সাবের আহম্মদ ছিলেন খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা উপজেলার একজন স্বনামধন্য ব্যবসায়ী। ৩ ভাই ৫ বোনের মধ্যে পরিবারের সবার বড় সন্তান কাশেম ১৯৮২-৮৩ শিক্ষাবর্ষে রাঙ্গুনিয়া কলেজ থেকে স্নাতক ডিগ্রী লাভ করে পিতার হাত ধরে চলে যান দীঘিনালা উপজেলায়। এছাড়াও পিতার ব্যবসায়ের সুত্র ধরে ছোটবেলা থেকেই এই উপজেলায় আসা-যাওয়া ছিল তাঁর। উত্তম চরিত্রের কারণে ও পাহাড়ি-বাঙ্গালিদের মধ্যে সম্প্রতির সেতুবন্ধন হিসেবে কাজ করায় অল্প দিনের মধ্যেই দীঘিনালায় তার বেশ পরিচিতি সৃষ্টি হয়। নিজের ব্যবসায়ীক কাজের পাশাপাশি সাধারণ মানুষের বিভিন্ন বিপদে পাশে গিয়ে দাঁড়াতেন তিনি। পাহাড়ি-বাঙ্গালির সাধারণ মানুষের অধিকারের কথা বলতে গিয়ে জড়িয়ে পড়েন রাজনীতির সাথে। মাত্র ১৭ বছর বয়সে দীঘিনালা উপজেলার হাইচিচিংপুর এলাকার সর্বকনিষ্ট ইউপি সদস্য নির্বাচিত হন তিনি।

সফলতার সাথে ওই দায়িত্ব শেষে তিনি ২৩ বছর বয়সে ইউপি চেয়ারম্যান পদেও প্রতিদ্বন্ধীতা করেছিলেন। সেবার মাত্র ৮ ভোটের ব্যবধানে তিনি পরাজিত হন। দীঘিনালার তৃণমূল থেকে উপজেলা পর্যন্ত আওয়ামীলীগের রাজনীতি করতে গিয়ে মাঠ চষে বেড়িয়েছেন তিনি। দীর্ঘ ২৮ বছর ধরে দীঘিনালা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছিলেন। বর্তমানে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হিসেবে গত ১৫ বছর ধরে তিনি দায়িত্বে রয়েছেন। বর্তমানে তিনি খাগড়াছড়ি চেম্বার অব কমার্সের নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের সমর্থন নিয়ে চেয়ারম্যান পদে তিনি প্রতিদ্বন্ধীতা করেছিলেন। তবে মাত্র ১৮৭ ভোটের ব্যবধানে হেরেছিলেন তিনি। আগামী ১৮ মার্চ দীঘিনালা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্টিত হবে। নির্বাচনে তিনি আওয়ামীলীগ ও পাহাড়ী-বাঙ্গালীদের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিতে যাচ্ছেন। এই পদে আরও দুইজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন। তাঁরা হলেন ওমেশ কান্তি চাকমা ও প্রপুল্লা চাকমা।

দীঘিনালা উপজেলা যুবলীগ নেতা মোঃ রাসেল বলেন, ‘কাশেম ভাই একজন সৎ, ধার্মিক, পরহেজগার, কর্মীবান্ধব নেতা। তিনি চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হলে পাহাড়ি-বাঙ্গালীদের মধ্যে সম্প্রতির যে সুবাতাস তা অক্ষুন্ন থাকবে। এবং দীঘিনালায় উন্নয়ন আরও বেশি ত্বরান্নিত হবে।