খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদদীঘিনালাপাহাড়ের সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

দীঘিনালায় সেতু মন্ত্রীর হেলিকপ্টার জরুরী অবতরণ!

দীঘিনালা প্রতিনিধি: সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি’র বহনকারী হেলিকপ্টারটি দীঘিনালা উপজেলায় জরুরী অবতরণ করেছেন। বুধবার দুপুর বারোটার দিকে এঘটনা ঘটে। ঘন কুয়াশার কারণে রামগড় উপজেলায় অবতরণ করতে না পেরে, প্রায় ৮০ কিলোমিটার দূর বেতছড়ি আর্মি ক্যাম্প হেলিপ্যাডে অবতরণ করেন। এসময় উপজেলার বেতছড়ি আর্মি ক্যাম্পের কমান্ডার ল্যাফটেন্যান্ট শাহরিয়ার মাহমুদ শোভন তাকে স্বাগত জানান।

জানাযায়, বুধবার সকালে খাগড়াছড়ির রামগড় এবং ভারতের সাব্রুম এলাকার ফেনী নদীর উপর (স্থলবন্দরের জন্য) সেতু নির্মাণকাজ উদ্ধোধনের জন্য হেলিকপ্টারে রওনা হন, সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি’ এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার হর্সবর্ধন শ্রিংলা। তাদের বহনকারী হেলিকপ্টারটি রামগড় এলাকায় পৌছার পর ঘনকুয়াশার কারণে বার বার চেষ্টা করেও হেলিপ্যাডের অবস্থান নিশ্চিত হতে না পেরে প্রায় ৮০ কিলোমিটার দুর দীঘিনালা উপজেলার বেতছড়ি আর্মি ক্যাম্পে জরুরী অবতরণ করেন।

এদিকে সংরক্ষিত এলাকায় হঠাৎ বেসরকারী হেলিকপ্টার অবতরণ করতে দেখে আশে পাশের উৎসুক জনতা ভীড় জমান। পরে হেলিকপ্টার থেকে নেমে সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি’ উৎসুক জনতার উদ্দেশ্যে হাত তুলে শুভেচ্ছা জানান।

এসময় ক্যাম্প কমান্ডার ল্যাফটেন্যান্ট শাহরিয়ার মাহমুদ শোভন সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি’ এবং হাই কমিশনার হংসবর্ধন শ্রিংলাকে শুভেচ্ছা এবং আপ্যায়ন করান।

এদিকে মন্ত্রী আসার খবরে, দীঘিনালা জোনের উপ-অধিনায়ক মেজর সাব্বির আহমদ, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নব কমল চাকমা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মোহাম্মদ  শহিদুল ইসলাম, অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মো. সামসুদ্দিন ভুইয়া বেতছড়ি আর্মি ক্যাম্পে পৌছান। কিন্তু তার আগেই রামগড়ের উদ্দেশ্যে হেলিকপ্টারে উড়াল দেন, সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি’ এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার হর্সবর্ধন শ্রিংলার হেলিকপ্টার।

এ ব্যাপারে খাগড়াছড়ি জেল যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক  কেএম ইসমাইল জানান, আমি উপজেলা ব্যাংকে কাজ করার পর মুঠোফোনে জানলাম মন্ত্রী মহোদয় বেতছড়ি ক্যাম্পে অবতরণ করেছেন, শুনে প্রথমে হতবাক হয়ে যাই। পরে দ্রুত ক্যাম্পে আসি।  বেতছড়ি ক্যাম্প কমান্ডার ল্যাফটেন্যান্ট শাহরিয়ার মাহমুদ শোভন জানান, ঘনকুয়াশার কারণে রামগড়ে অবতরণ না করে এখানে জরুরী অবতরণ করেন। পরে রামগড় হেলিপ্যাডের অবস্থান নিশ্চিত হওয়ার পর বিশ মিনিট পরই আবার উড়ে যান।