খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদপাহাড়ের সংবাদমাটিরাঙ্গাশিরোনামস্লাইড নিউজ

মাটিরাঙ্গা ভাইস চেয়ারম্যান পদে একক প্রার্থী মনোনীত

অন্তর মাহমুদ, মাটিরাঙ্গা: আসন্ন মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের একক প্রার্থী নির্ধারণে তৃণমূল নেতাকর্মীদের মতামত প্রকাশের লক্ষে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার বিকাল ৩ টার দিকে উপজেলা আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ে এই ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। উপজেলা আওয়ামীলীগ আয়োজিত বিশেষ এই জরুরী বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা রণ বিক্রম ত্রিপুরা। তিনি তৃণমূল নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, নিজেদের মধ্যে কোন ধরণের বিরোধ যাতে সৃষ্টি না হয় সে জন্যেই ভোট গ্রহনের এই আয়োজন। নেতাকর্মীরা যাকে একক প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত করেছেন তাকেই কেন্দ্রে আওয়ামীলীগের দলীয় একক প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ ও পুরণ শেষে জমা দেয়ার জন্য পাঠানো হবে। এ সময় বিজয়ীদের কোন ধরনের শো-ডাউন বা আনন্দ মিছিল না করার আহবান জানান তিনি।

এরপর প্রধান অতিথি ভোট গ্রহন শেষে সকলের উপস্থিতিতে ভোট গননা শেষে গোমতি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মো: মনির হোসেন‘কে ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) ও মিসেস হোসনেয়ারা বেগম‘কে ভাইস চেয়ারম্যান (মহিলা) পদে বিজয়ী হিসেবে নাম ঘোষনা করেন। এবং আওয়ামীলীগের দলীয় একক প্রার্থী হিসেবে কেন্দ্র থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের পর পুরণ পুর্বক তা আবার কেন্দ্রে জমা দেওয়ার আহবান জানান তিনি।
অনুষ্ঠানে খাগড়াছড়ি থেকে আগত জেলা আওয়ামীলীগ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা রইছ উদ্দিন, শুভ মঙ্গল চাকমা, সদর খাগড়াছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক চন্দন কুমার দে উপস্থিত ছিলেন। পৌর আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি এম এম জাহাঙ্গীয় আলমের সঞ্চালনা ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ শামছুল হকে‘র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক সুবাস চাকমা,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হিরন জয় ত্রিপুরা,পৌর আওয়ামীলীগ সভাপতি মো: হারুনুর রশিদ ফরাজী প্রমুখ।

ফলাফলে মো: মনির হোসেন ফুটবল প্রতীকে ৯৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী মো: আবুল বশর মাইক প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৮৫ ভোট। পুরুষদের প্রার্থীদের মধ্যে মো: আনোয়ার হোসেন মই প্রতীকে পেয়েছেন ১৬ ভোট,মো: নুরুল ইসলাম কোন ভোট পাননি। এ ছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান (মহিলা) পদে মিসেস হোসনেয়ার বেগম গোলাপ ফুল প্রতীক নিয়ে ১০৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী মিসেস হাসিনা বেগম পেয়েছেন ৮৮ ভোট। এ ছাড়া হাঁস প্রতীক নিয়ে মোসাম্মৎ রোজিনা রেগম পেয়েছেন ৯ ভোট। মোট ভোটার সংখ্যা-২২০,বৈধ ভোট পড়েছে ২০৮ ভোট,বাতিল ভোট সংখ্যা-২।