খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদপাহাড়ের সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

২১ আগস্ট গ্রেনেট হামলাকারীদের শাস্তির দাবীতে খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন

দন্ডপ্রাপ্তদের রায় কার্যকরের দাবী

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেট হামলার সাথে জড়িতদের শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে খাগড়াছড়িতে। বুধবার বিকেলে জেলা শহরের খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ-সংগঠনের উদ্যোগে দলীয় কার্যালয়ের সমানে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি রণ বিক্রম ত্রিপুরার সভাপতিত্বে এতে উপস্থিত ছিলেন, খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, পৌরসভা মেয়র রফিকুল আলম, জেলা আ্ওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি কল্যাণ মিত্র বড়ুয়া, আওয়ামীলীগ নেতা জাহেদুল আলম, নির্মলেন্দু চৌধুরী,সাংগঠনিক সম্পাদক এড. আশুতোষ চাকমা,যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক মংসেইপ্রু চৌধুরী অপু, শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক দিদারুল আলম দিদার, জেলা পরিষদ সদস্য জুয়েল চাকমা, আ: জব্বার, পার্থ ত্রিপুরা জুয়েল, শতরূপা চাকমা, জেলা যুবলীগ সভাপতি যতন কুমার ত্রিপুরা, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি টিকো চাকমাসহ অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মীরা এতে অংশ নেয়।

বক্তরা এ সময় বলেন, বঙ্গবন্ধু জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা করে আওয়ামীলীগের নেতৃত্ব রোধ করে দেশকে জঙ্গি রাষ্ট্রে পরিণত ষড়যন্ত্র করেছিল বিএনপি-জামায়াত জোট। এ ঘটনায় তারেক রহমানসহ জড়িত দেশে ফিরিয়ে এনে মামলার রায় কার্যকরের দাবী জানানো হয়।

বক্তরা আরো বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট সে সময় আওয়ামীলীগের সমাবেশে গ্রেনেট হামলা চালিয়ে এদেশকে মেধা শূন্য করে জঙ্গি, সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যের পাশাপাশি আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের হত্যাযজ্ঞে মাধ্যমে বাংলাদেশকে নরকে পরিণত করেছিল।

তাই ২১ আগস্ট গ্রেনেট হামলা মামলায় যাবজ্জীবন কারাদ-প্রাপ্ত বিএনপির চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও সাবেক সাংসদ শাহ মোফাজ্জল হোসেন কায়কোবাদসহ জড়িতদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবী করেন। সে সাথে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থানে থাকতে নেতাকর্মীদের আহবান জানান বক্তারা।

প্রঙ্গত: ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট হামলা মামলায় মোট ৫২ জন আসামী ছিলেন। তাদের মধ্যে ২০১৮ সালের ১০ অক্টোবর আদালতের রায়ে ১৯জনকে যাবজ্জীবন এবং ১৯ জনকে মৃত্যুদ- দেওয়া হয়। তার মধ্যে সাবেক স¦রাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, সাবেক শিক্ষা উপমন্ত্রী আব্দুস সালাম পিন্টুসহ ৩০ জন কারাগারে আছেন।