আলী কদমপাহাড়ের সংবাদবান্দরবান সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

লামায় জাতীয় পরিচয়পত্র জালিয়াতির অভিযোগ

প্রিয়দর্শী বড়ুয়া,লামা-আলীকদম (বান্দরবান): বান্দরবানের লামা উপজেলায় জাতীয় পরিচয়পত্র জালিয়াতি করে বয়স্ক ভাতার তালিকায় নাম অন্তুর্ভুক্তির অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার সরই ইউনিয়ন ইউনিয়ন পরিষদের ৮নং ওয়ার্ড সদস্য মো. জামাল উদ্দিন জালিয়াতির কাজটি করেন। সোমবার বয়স্ক ভাতা তালিকার জালিয়াতির কাজে লিপ্ত ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য স্থানীয় হাসমত আলম ও মো. মিনহাজ উদ্দিন উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেছেন। এ ধরণের অনিয়মের কারণে অনেক প্রকৃত সুবিধা ভোগীরা ভাতা হতে বঞ্চিত হচ্ছেন বলে দাবী করেন এলাকাবাসী।

জানা গেছে, সরই ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড মেম্বার মো. জামাল উদ্দিন তার শশুর নুরুল কবিরের বয়স লুকিয়ে ৫৬ বছরের জায়গায় ৬৫ বছর দেখিয়ে বয়স্ক ভাতায় তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত করেন। জাতীয় পরিচয়পত্র ও ভোটার তালিকায় নুরুল কবিরের জন্ম তারিখ ২ নভেম্বর ১৯৬০ইং এবং বয়স ৫৬ বছর উল্লেখ আছে। কম্পিউটার স্ক্যনিং এর মাধ্যমে জন্ম তারিখ ২ নভেম্বর ১৯৫১ইং তথা ৬৫ বছর করে সমাজ সেবা কার্যালয়ে জমা দেন ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য  মো. জামাল উদ্দিন। এছাড়া নুরুল কবিরের বাড়ি ৫নং ওয়ার্ডে হলেও তাকে বয়স্ক ভাতা দেয়া হচ্ছে ৮নং ওয়ার্ড থেকে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে ভিজিডি, আরএমপি, প্রতিবন্ধী ভাতার তালিকা তৈরি ও এলজিএসপি উন্নয়ন কাজের অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করে জানিয়েছেন।
এদিকে অভিযুক্ত ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মো. জামাল উদ্দিন বলেন, ভাতা ভোগীরা যেসব কাগজপত্র জমা দিয়েছেন, সে কাগজপত্রের ভিত্তিতে আমি তালিকা তৈরি করেছি। নুরুল কবির ভোটার পরিবর্তন করে ৮নং ওয়ার্ডে এসেছেন বলেও জানান তিনি।

লামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার খিনওয়ান নু বলেন, জাতীয় পরিচয়পত্র জালিয়াতি করে বয়স্ক ভাতার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তাকে বলা হয়েছে।

জাতীয় পরিচয়পত্র জালিয়াতির মাধ্যমে বয়স্ক ভাতার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্তির সত্যতা স্বীকার করে সমাজ সেবা কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, এ ঘটনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।