রাজশাহীশিরোনামস্লাইড নিউজ

গোদাগাড়ী সাপাহার রাস্তার পুরাতন পাইকড় গাছটি কেটে ফেলা হলো

Godagari photo 22গোদাগাড়ী(রাজশাহী) প্রতিনিধি: বিভাগীয় শহর রাজশাহীর সাথে সংযোগ কারী অন্যতম রাস্তা সাপাহার-গোদাগাড়ী সড়ক। এই সড়কের দেখভালের দায়িত্ব ছিল বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপরে। সেই বরেন্দ্র কর্তৃপ সাপাহার-গোদাগাড়ী সড়কের টগরাইল নামক স্থানের অন্যতম পুরাতন বৃ পাইকড় গাছটি অর্ধেক কেটে ফেলেছে বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপরে ঠিকাদার। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় শুক্রবার সকাল সকাল ঠিকাদার অয়েজ এর লোকজন নিয়ে গাছ কাটা আরাম্ভ করে। এতে গ্রাম বাসি ক্ষুদ্ধ হয়ে ঠিকাদারের লোকজন কে বাধা প্রদান করলে ঠিকাদারের লোকজন সরকারী কাজে বাধা দানের কথা বলে স্থানীয়দের ভয়ভীতি প্রদান করতে থাকে।

এক পর্যায়ে গ্রামের সহজ সরল লোক ভয়ভীতি পেয়ে চলে গেলে ঠিকাদারের লোকজন গাছটির উপরের অর্ধেক ঢালপালা কেটে ফেলে। রাস্তা দিয়ে এ প্রতিবেদক উপস্থিত মানুষের জটলা দেখে জানতে চাইলে অনেকে তাদের আকুতির কথা জানায়। বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট  এরিয়ার নিয়ামতপুর বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপরে সহকারী প্রকৌশলী মতিউর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হয়। তিনি বলেন, রাস্তার দুধারে কেবল বনজ গাছ কাটার টেন্ডার দেয়া হয়েছে কোন ফলজ গাছ কাটার টেন্ডার দেয়া হয় নি। সেহেতু সে কোন পাইকড় গাছ কাটার কথা নয়। তাকে আবহিত করা হয় যে, গাছটির অর্ধেক কেটে ফেলা হয়েছে। তিনি সাথে সাথে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারকে গাছ কাটা বন্ধ রাখার নিদের্শ প্রদান করে। ফলে গাছটি অর্ধেক নিয়ে কোন রকমে দাড়িয়ে আছে।  তামিজ উদ্দিন নামের সত্তরার্ধ এক ব্যাক্তি বলেন, ৬০এর দর্শকে সাপাহার-গোদাগাড়ী রাস্তাটি চলাচলের একমাত্র রাস্তা ছিল।

সেই রাস্তা দিয়ে মহিষ ও গরুগাড়ী চলচল করত। দুরদুরান্তের লোকজন এই পাইকড় গাছটির তলায় আশ্রয় গ্রহণ করে গাড়ী লাগান দিয়ে রাত্রী যাপন করত। তাছাড়াও গাছে নানা ধরনের পাখি, সারস, বক ও বাদুড় বসবাস করত। হঠাৎ করে এই গাছ কেটে ফেলায় সকাল থেকে  বকের ডাকা ডাকী শুনে  এসে দেখি যে, কতিপয় ব্যক্তি গাছটি কেটে ফেলছে। তাদের নিষেধ করলে তারা নানা রকম ভয়ভীতি প্রদান করতে থাকে। এ বিষয়ে অভিযুক্ত  ঠিকাদার অয়েজ উদ্দীনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন আমি যে সব গাছের নাম্বারিং পেয়েছি সেগুলো গাছ কেটেছি। বনজ আর ফলজ্ পাইকড় লাইকড় গাছ বুঝি না।  তবে বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপরে  নিয়ামতপুর জোনের সহকারী প্রকৌশলী মতিউর রহমান বলেন, ভুলক্রমে গাছটিতে নাম্বারিং করা হলেও তা টেন্ডার থেকে বাদ দেয়া হয়েছে। কেন কাটল বা কে কাটার নির্দেশ দিয়েছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Comment here