Tuesday , 19 June 2018
গুইমারায় রমযানকে স্বাগত জানিয়ে র‌্যালি: ভেজাল বিরোধী অভিযান

গুইমারায় রমযানকে স্বাগত জানিয়ে র‌্যালি: ভেজাল বিরোধী অভিযান

স্টাফ রিপোর্টার: রহমত, মাগফিরাত ও নাজাতের মহিমান্বিত মাস পবিত্র মাহে রমযান। ইসলাম ধর্মাবলম্বী মুসলমানের কাছে এমাস বেশ গুরুত্বপূর্ণ মযার্দার মাস। পবিত্র মাহে রমযানকে স্বাগত জানানোর জন্য দেশের অন্যান্য স্থানের মত খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার গুইমারাতে এক র‌্যালি করে করে গুইমারা উপজেলার সর্বস্তরের মুসলিম জনতা। শুক্রবার বাদ জুমআ গুইমারা উপজেলা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম ও খতীব এবং রমযানের পবিত্রতা রক্ষা কমিটির সভাপতি মাওলানা মোঃ ওসমান গনির নেতৃত্বে গুইমারা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ প্রাঙ্গণ থেকে শুরু হয়ে র‌্যালীটি উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে গিয়ে শেষ হয়। রমযানকে স্বাগত জানানোর পাশাপাশি রমযানের পবিত্রতা রক্ষা, রমযান মাসে দ্রব্যমুল্য সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে রাখার দাবী সম্বলিত বিভিন্ন স্লোগানের মুখরিত করে তোলে মুসল্লী ও র‌্যালিতে অংশগ্রহণকারীরা।

এসময় গুইমারা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও গুইমারা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, গুইমারা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক হাজী কাজী মফিজুল আলম, সহ সম্পাদক মোঃ আমির হোসেন, অর্থ সম্পাদক মশিউর রহমান তারেক, সদস্য মোঃ রমযান আলী, মোঃ শাহ আলম, মোঃ ইউসুফ পাটোয়ারী, গুইমারা ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার মোঃ জায়নুল আবদীন ছাড়াও উপজেলার সর্বস্তরের মুসলিম ও মুসল্লীগণ র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন। র‌্যালি শেষে বাংলাদেশ দেশ ও বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনায় বিশেষ মুনাজাত করা হয়। কেন্দ্রীয় মসজিদের ইমাম মাওলানা মোঃ ওসমান বিশেষ মুনাজাত পরিচালনা করেন।

অপরদিকে, পবিত্র মাহে রমজানের পবিত্রতা রক্ষা, অসাধু ব্যবসায়ীরা যাতে পণ্যদ্রব্যের বাড়তি মূল্য নিতে না পারে এবং স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে খাবার তৈরী ও বিক্রি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ধারাবাহিক ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান চালাচ্ছে গুইমারা উপজেলা প্রশাসন। রমযান মাসের করনীয় ও পবিত্রতা রক্ষায় গুইমারা বাজারে রমজানে মান সম্মত ইফতার বিক্রি নিশ্চিত করা, পচা-বাসি ইফতার বিক্রি না করা, দিনের বেলায় হোটেলে মুসলিমদের নিকট খাদ্য বিক্রি না করা ও দ্রব্যমূল্য সাধারণ মানুষের ক্রয়সীমার মধ্যে রাখার জন্য সঠিক মূল্য নির্ধারণ ও তালিকা প্রনয়ন করে দোকানে ঝুলিয়ে রাখাসহ রমজানকে সম্মান জানাতে বাজার ব্যবসায়ী ও সুধী সমাজের সাথে মতবিনিময় সভা করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পঙ্কজ বড়–য়া।

বিগত কয়েকদিনে গুইমারা উপজেলার আওতাধীন গুইমারা বাজারের খাবার দোকান, মাছ বাজারে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে নোংরা পরিবেশে খাদ্যদ্রব্য তৈরি, পরিবেশন এবং মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য বিক্রির জন্য বেশ কয়েকটি দোকান মালিককে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত। গুইমারা উপজেলার গত মঙ্গলবার দুপুরে গুইমারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পঙ্কজ বড়ুয়া ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন-২০০৯ এর ৩৯ধারা অনুযায়ী আদালত পরিচালনা করেন। গুইমারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পঙ্কজ বড়ুয়া জানান, ২০০৯সালের ভোক্তা অধিকার আইনের ৩৯ধারা অনুযায়ী মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য বিক্রয়, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্যদ্রব্য তৈরি ও বিক্রয়ের দায়ে গুইমারা বাজারের বেশ কয়েককটি দোকানদারকে ৪হাজার টাকা জরিমানা করে। জনসচেতনতা এবং রমযানের পবিত্রতার স্বার্থে পুরো মাস অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান। এসময় গুইমারা থানার এস আই জাহাঙ্গীর আলম সহ প্রশাসনের কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন।

১৭মে বৃহস্পতিবার গুইমারা উপজেলাধীন সিন্দুকছড়ি বাজারে প্রথম বারের মত ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করেন গুইমারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পঙ্কজ বড়ুয়া। এসময় বেশ কয়েকটি দোকানে অভিযান পরিচালনাকালে দোকানিদের শর্তক করে দিয়ে দুটি দোকানে মোট ২হাজার টাকা জরিমানা করেন তিনি। রমজানে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন আইনে মোবাইল কোর্ট অব্যাহত থাকবে বলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান। ব্যবসায়ীদেরকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন খাবার পরিবেশনের পরামর্শ দেন। পাশাপাশি পবিত্র রমজান মাসে পবিত্রতা রক্ষা করে ব্যবসা পরিচালনা, ওজনে কম না দেওয়াসহ বিভিন্ন বিষয়ে ব্যবসায়ীদের সচেতন করতেই মুলক এ অভিযানের মুল লক্ষ বলে তিনি জানান।

Share This:

BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes