Wednesday , 15 August 2018
লামায় শিক্ষককে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ

লামায় শিক্ষককে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ

প্রিয়দর্শী বড়ুয়া, প্রতিনিধি: বান্দরবানের লামা উপজেলায় এক ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিকককে মিথ্যা মামলা দিয়ে হযরানি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। পৌরসভা এলাকার মাষ্টারপাড়ার বাসিন্দা মৃত ধুংচিংমং মাষ্টারের ছেলে মংয়ইন থিং মার্মা তার সৎ মায়ের বিরুদ্ধে সাংবাদিকদের কাছে লিখিতভাবে এ অভিযোগ করেন। মংয়ইন থিং মার্মা উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের বনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক। হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলার সুষ্ঠ তদন্ত পূর্বক আইনগত সহায়তার পাশাপাশি হয়রানি থেকে রেহাই পেতে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করেন, শিক্ষক মংয়ইন থিং মার্মা।

অভিযোগে জানা যায়, ২০০৯ সালের ২৬ আগস্ট মংয়ইন থিং মার্মার বাবা ধুংচিংমং মার্মা বার্ধক্য জনিতকারণে মারা যাওয়ার পর নিঃসন্তান সৎ মা হ্লাথিং মার্মাকে নিয়ম অনুযায়ী স্বামীর স্থাবর/ অস্থাবর সম্পদের পাওনা বুঝিয়ে দেয়া হয়। মারা যাওয়ার আগে বাবা ১৬০শতক জমি বন্ধক রাখার কারণে ভাগ করা যায়নি। এ কারণে তার বড় বোন উয়ইমে মার্মার সাথে সৎ মা হ্লাথিং মার্মার মনমালিন্য হয়। একে কেন্দ্র করে সম্প্রতি পাড়ার কতিপয় কুচক্রীমহলের প্ররোচনায় সৎ মা হ্লাথিং মার্মা বিভিন্ন সময় শিক্ষক মংয়ইন থিং মার্মাসহ বোনদের বিরুদ্ধে একাধিক মিথ্যা মামলা দিয়ে অযথা হয়রানি শুরু করেন। ২০১৬ সালের ২৩ অক্টোবর মিথ্যা ও ভিত্তিহীন সিআর মামলা দায়ের করেন (মামলা নং- ১১৭/২০০৬)। এ মামলায় হেরে যাওয়ার ভয়ে চলতি মাসের ১২ তারিখ মিথ্যা অভিযোগ এনে থানায় আরেকটি মামলা করেন সৎ মা হ্লাথিং মার্মা (মামলা নং- ৫/৩৯)। উভয় মামলায় বর্ণিত তারিখ ও সময়ে মংয়ইন থিং মার্মা বিদ্যালয়ে কর্মরত ছিলেন মর্মে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রত্যয়নসহ যথেষ্ট প্রমাণ রয়েছে। ভুক্তভোগী শিক্ষক মংয়ইন থিং মার্মা বলেন, আমার সথে সৎ মায়ের কোন বিরোধ নেই। কিন্তু তিনি আমাকে কেন মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করছেন তা বোধগম্য নয়।

এ বিষয়ে লামা উপজেলা সহকারি প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আশীষ কুমার মহাজন বলেন, মামলায় উল্লেখিত ঘটনার দিন তারিখ সময়ে শিক্ষক মংয়ইন থিং মার্মা বিদ্যালয়ে কর্মরত ছিলেন।

Share This:

BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes