খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদপাহাড়ের সংবাদমানিকছড়িশিরোনামস্লাইড নিউজ

মানিকছড়ি রাস্তা নির্মাণে ক্ষতি গ্রস্থদের মাঝে চেক বিতরণ

স্টাফ রিপোর্টার: খাগড়াছড়ি জেলার মানিকছড়ি ইউনিয়নের “গাড়িটানা বাটনাতলী ইউনিয়ন হেডকোর্য়াটার ভায়া জিসি যুইগ্যছোলা বাজার নির্মিত রাস্তার পরিবর্তন, পুন:নির্মাণ, ভূমি উন্নয়ন করণে ক্ষতি গ্রস্থদের মাঝে ও ব্যাবসা পূর্নবাসন অনুদানকৃত চেক ২৯ মে মঙ্গলবার খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ হল রুমে বিতরণ করা হয়েছে। আউই’র অর্থায়নে পার্বত্য চট্টগ্রাম পল্লী উন্নয়ন প্রকল্প-২য় পর্যায় এ চেক বিতরণ করা হয়েছে। এডিবি’র খাগড়াছড়ি জেলার উপ-পরিচালক আশা প্রদীপ চাকমা‘র সভাপতিত্বে চেক বিতরণ পূর্ব আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী‘র প্রতিনিধি জেলা পরিষদের সদস্য শিক্ষানুরাগী বহু স্কুল, কলেজের প্রতিষ্ঠাতা খগেশ্বর ত্রিপুরা।

পার্বত্য চট্টগ্রামের মানুষ অনাগ্রসর ও পশ্চাৎপদ বলেই সরকার মুল আইনের উপর ভিত্তি করে পার্বত্য চুক্তি সম্পাদন করেছিলেন; আর সেই চুক্তির কারনেই এখানে এডিবি কাজ করতে এসেছেন উল্লেখ করে প্রধান অতিথি বলেন, লিজ করতে এসে বাস্তব অবস্থা অবলোকন করে সরকারের নীতিমালার পাশাপাশি এই ধরনের ক্ষতি গ্রস্থ পরিবারের মাঝে ক্ষতি পুরণ দেয়ার জন্যে নীতিমালা তৈরী করেন। যার কারণে আজ আপনাদের মাঝে ৩৩লাখ ৪০হাজার ৯৬৮টাকা ৪৫পয়সার চেক বিতরণ করা হবে। ২পক্ষ মিলে ৩য় পক্ষের কল্যাণের জন্যে চুক্তি করেছিলেন বিধায় আজকে এই সুবিধা পাচ্ছেন, নচেৎ আপনাদেন রাস্তা হলেও বোনাস হিসাবে অতিরিক্ত এই ৩৩লক্ষাধিক টাকা পেতেন না উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, তাই যে ও যাদের কারনে এবং যে রাজনৈতিক দলের কারনে আপনারা এই সুবিধা পাচ্ছেন সেই আওয়ামীলীগ সরকারের প্রতি আপনাদেরকে সমর্থন এবং সাবির্ক সহযোগীতা করা প্রয়োজন, শুধু রাজনৈতিক বিবেচনায় নহে সামাজিক এবং ধর্মীয় বিবেচনাতেও যিনি বা যাঁর দ্বারায় আমার, আমাদের উপকার হয়, তাদেরকে সমর্থন করা, সহযোগীতা করা মানবিক মুল্যবোধ এবং ধর্মীয় আচার অচরনের মধ্যে পড়ে। তাই আমি আপনাদের সকলকে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রতি সমর্থন ও সহযোগীতা প্রদানের জন্যে অনুরোধ আবেদন জানিয়ে আমার বক্তব্য শেষ করছি।

পৃথিবীতে সব কাজের একটি নিয়ম নীতির মাধ্যমে বাস্তবায়ন করতে হয় উল্লেখ করে প্রধান অতিথি বলেন, উল্লেখিত রাস্তা নির্মান এবং ক্ষতি গ্রস্থদের মাঝে ক্ষতি পুরণ দেয়ার জন্যও নীতিমালা আছে, যে নীতিমালার আলোকে রাস্তাটি তৈয়ার করা হয়েছে, সেই আলোকেই ক্ষতি গ্রস্থদেরকে ক্ষতি পুরণ দেয়ার জন্য উদ্যোগ গ্রহন করা হয়েছে। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন তংগা এনজিও’র ইডি বিপ্লব চাকমা, মনিটরিং অফিসার পলাশ খীসা, প্রকল্প ব্যাবস্থাপক রিতেশ রায়। সভা শেষে ক্ষতি গ্রস্থ ২৮ জনের মাঝে ৩৩লাখ ৪০হাজার ৯’শ ৬৮টাকা ৪৫ পয়সার চেক বিতরণ করা হয়। ক্ষতি পুরণ বাবদ জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে ৮৫লাখ ৭৮হাজার ৪’শ ৮১ টাকা প্রদান করা হবে যা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।