পাহাড়ের সংবাদবান্দরবান সংবাদলামাশিরোনামস্লাইড নিউজ

লামায় ব্রিজের সংযোগ সড়কের মাটি ধসে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন এক সপ্তাহ ধরে

লামা (বান্দরবান) প্রতিনিধি: বান্দরবানের লামায় সরই ইউনিয়নের কেয়াজুপাড়া বাজার–লোহাগাড়া সড়কের হাসনাভিটাস্থ সরই খালের ব্রিজের দু’পাশে সংযোগ সড়কের মাটি ধসে পড়ে গত এক সপ্তাহ যাবত যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। একারনে জনদুর্ভোগ চরম আকার ধারন করেছে। ধসে পড়া সড়কের সংস্কারের কোনো উদ্যোগ নেয়নি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। যারফলে সরই ইউনিয়নের সাথে লোহাগাড়া উপজেলার সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে শিক্ষার্থীসহ কয়েক হাজার মানুষ। বিশেষ করে সরই ইউনিয়নের বিস্তীর্ণ পাহাড়ি এলাকায় মেরিডিয়ানসহ ১০/১৫টি কোম্পানীর বৃহদাকার উন্নতমানের আম, জাম, কাঠাল, কলা, আনারস, লিচু, লেবু ও মাল্টাসহ নানা ফলের পরিবহন সংকটের কারনে কয়েক কোটি টাকার ফল নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ রয়েছে, স্থানীয় ও বহিরাগত কতিপয় প্রভাবশালি সিন্ডিকেট দীর্ঘদিন ধরে ব্রিজের পাশ থেকে অবাধে বালু উত্তোলনের কারণে সংযোগ সড়কের মাটি ধসে গিয়ে এ সংকটের সৃষ্টি হয়েছে।

সরই ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফরিদউল আলম বলেন, সরই-লোহাগাড়া সড়কের হাসনাভিটাস্থ বেইলি ব্রিজের দু পাশের মাটির ভেঙে পড়ার ঘটনা শুনেছি। ব্রিজের পাশ থেকে অবাধে বালু উত্তোলনের কারণে মাটিসহ ব্রিজটির একাংশ ভেঙে গেছে। এতে করে শিক্ষার্থীসহ স্থানীয়রা চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন। এলজিইডির দায়িত্বরতদের সাথে সমন্বয় করে দ্রুত সড়ক যোগাযোগ চালু করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি। জানা যায়, সরই ইউনিয়নের সঙ্গে চট্টগ্রামের যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম সরই-লোহাগাড়া সড়ক। এলাকাবাসীর সুবিধার্থে সড়কের হাসনাভিটা নামক স্থানে সরই খালের ওপর প্রায় ৩৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ১৫ বছর আগে ব্রিজটি নির্মাণ করে বান্দরবানের স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর। বিভিন্ন সময় স্থানীয় ও বাহিরাগত কিছু প্রভাবশালী সিন্ডিকেট এ ব্রিজের পাশ থেকে অবাধে বালু উত্তোলন করে আসছে। এরফলে ব্রিজের সংযোগ ধসে যায়। গত কয়েকদিনের ভারি বৃষ্টিপাতের কারনে সৃষ্ট পানির  ¯্রােতের টানে ব্রিজের দু পাশের সংযোগ সড়কের মাটি ধসে পড়ে। এতে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

এ বিষয়ে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের লামা উপজেলা প্রকৌশলী মো. মোবারক হোসেন বলেন, বান্দরবান এলজিইডির সাথে সমন্বয় করে শিগশিগরই ব্রিজটিসহ সংযোগ সড়ক মেরামতের উদ্যোগ নেওয়া হবে।