খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদপাহাড়ের সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

পিসিপির মিছিলে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে বাধা দেয়ার নিন্দা

ডেস্ক রিপোর্ট: গত ৩০ জুন ২০১৮ পঞ্চদশ সংশোধনী আইন বাতিলের দাবিতে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি), হিল উইমেন্স ফেডারেশন ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম খাগড়াছড়ি জেলা শাখার উদ্যোগে খাগড়াছড়ি জেলা শহর স্বনির্ভর বাজারে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে খাগড়াছড়ি জেলা সদরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে সাধারণ শিক্ষার্থী অংশগ্রহণকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে ও পিসিপি সংগঠনের কোন মিছিলে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ না করতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহের প্রতি গোপন নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) খাগড়াছড়ি জেলা শাখা। পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ খাগড়াছড়ি জেলা শাখার দপ্তর সম্পাদক সমর চাকমা স্বাক্ষরিত ৭ জুলাই সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক প্রেসর্বাতায় এ নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়।

পিসিপি খাগড়াছড়ি জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তপন চাকমা ও সাধারণ সম্পাদক অমল ত্রিপুরার সংবাদ মাধ্যমে প্রদত্ত বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় অভিযোগ করে বলেন, ২০১১ সালে সংবিধানে ‘‘পঞ্চদশ সংশোধনীতে” বর্তমান ফ্যাসিস্ট আওয়ামি লীগ সভাপতি ও বাংলাদেশের প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা জনগণের মতকে উপেক্ষা করে সংবিধানে রাষ্ট্র ধর্ম ইসলামকে বহাল রেখে দেশে সংখ্যা লঘু জাতিসত্তাসমূহ বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও অন্যান্য ধর্মকে দ্বিতীয় শ্রেণী নাগরিক ও ধর্মে পরিণত করেছে। তারই প্রতিবাদে ও সংবিধানে ‘‘পঞ্চদশ সংশোধনী” আইন বাতিলে দাবিতে গত ৩০ জুন খাগড়াছড়ি জেলা শহর স্বনির্ভর বাজারে তিন সংগঠনের বিক্ষোভ সমাবেশ করে। সমাবেশে খাগড়াছড়ি সদরসহ জেলা কয়েকটি এলাকা থেকে দেড় হাজার ছাত্র-যুব-নারী ও জনতা সঃতস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন। তিন সংগঠনের এই গণতান্ত্রিক কর্মসূচিকে বাধাগ্রস্থ করতে সেদিনে প্রশাসন বাধা প্রদান করে ভুন্ডুলের চেষ্টা চালায়। তারপরও সমাবেশটি শান্তিপূর্ণভাবে সফল হয়েছে।

তিন সংগঠনের নিয়মতান্ত্রিক কর্মসূচিতে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থাগ্রহণ করতে গত ৪ জুলাই ২০১৮ খাগড়াছড়ি বিগ্রেড থেকে খাগড়াছড়ি টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ, টিউফা স্কুলসহ কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চিঠি প্রেরণ করেন। নেতৃদ্বয় আরো অভিযোগ করে বলেন, ১৭ আগস্ট ২০১৭ পিসিপি’র উদ্যোগে নান্যাচর কলেজে নবীন বরণ ও কলেজ কাউন্সিল করার ফলে রাষ্ট্র বিরোধী কর্মসূচি পালনে আক্ষা দিয়ে ১৯ নভেম্বর  ২০১৭ শিক্ষা মন্ত্রণালয় মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বিভাগ থেকে নান্যাচর কলেজে বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়।সরকার ছাত্রদের নিয়মতান্ত্রিক কর্মসূচিতে নিষাধাজ্ঞা আরোপকে সংবিধানে মৌলিক অধিকার পরিপন্থী। এটি দেশের জনগণ তথা ছাত্র সমাজের মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে খর্ব করার চক্রান্ত।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয়, প্রশাসনের অগণতান্ত্রিক কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে। সরকারে সভা সমাবেশে গোপন নিষেধাজ্ঞা আরোপ প্রত্যাহার ও গণতান্ত্রিক অধিকার নিশ্চিতসহ পার্বত্য চট্টগ্রামের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহের সেনাবাহিনী নিয়ন্ত্রণের ষড়যন্ত্র বন্ধেরও দাবি জানান।