কাউখালীপাহাড়ের সংবাদরাঙ্গামাটি সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

কাউখালী কেন্দ্রীয় কবরস্থানের ব্যাপক ভাঙ্গন: জরুরী ব্যবস্থা নেয়ার দাবি

Kaukhali Graveyard Landslide News pic-1-02.02.2016কাউখালী(রাঙ্গামাটি) প্রতিনিধি: গেলো প্রবল বর্ষণে ইছামতি ও কাউখালী নদীর অব্যাহত ভাঙ্গনের ফলে তিন যুগ পুরনো কাউখালী উপজেলা কেন্দ্রীয় কবরস্থান বিলীন হতে চলেছে। ফলে কয়েকশ লাশ পানিতে ভেসে যাওয়ার আশংকা করছেন স্থানীয়রা। তবে ভাঙ্গন রোধে জরুরী ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানা গেছে।
২ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার দুপুরে সরেজমিন গিয়ে দেখো গেছে, ইছামতি ও কাউখালী নদীর সংযোগস্থলে অব্যাহত ভাঙ্গনের সাথে সাম্প্রতিক প্রবল বর্ষণের পাহাড়ি ঢল কবরস্থানের পশ্চিম-দক্ষিণ অংশে ব্যাপক ভাঙ্গন তৈরি করেছে। দু’অংশে প্রায় ৫/৬শ ফুট নদীর পার ভেঙ্গে নদীতে মিশে গেছে।

কবরস্থান সংলগ্ন উত্তর অংশে কাউখালী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ভাঙ্গন ঠেকাতে পানি উন্নয়ন বোর্ড থেকে ইতিমধ্যে সিসি ব্লক স্থাপন করা হয়েছে। কিন্তু কবরস্থানের পশ্চিম ও দক্ষিণ অংশে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। দক্ষিণ অংশে অপরিকল্পিত ও বিক্ষিপ্তভাবে তৈরী করা প্রায় ৪শ ফুট রিটানিং ওয়ালও ভেঙ্গে নদীতে পড়ে গেছে। ভাঙ্গনের ফলে হুমকির মুখে পড়েছে উপজেলার সাথে সংযোগ স্থাপনকারী ইছামতি সেতুটিও।

স্থানীয় বাসিন্দা শিক্ষক মোঃ ইব্রাহিম, ব্যবসায়ি মোঃ শহিদুল ও সুরুজ মিয়া বলেন, বাপ-দাদার শেষ ঠিকানা এটি। এভাবে ভাঙ্গন অব্যাহত থাকায় কয়েকশ লাশ পানিতে ভেসে যাওয়ার আশংকা বেড়েই চলছে। কবরস্থান কমিটির সদস্য মশিউর রহমান বলেন, প্রতিদিন বৃদ্ধি পাওয়া এ ভাঙ্গন ঠেকানো না গেলে আগামী বর্ষায় কবরস্থানের সিংহভাগই বিলীন হয়ে যেতে পারে।

কাউখালী উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা কমল বরন সাহা জানিয়েছেন, কবরস্থানের পশ্চিম-দক্ষিণ অংশে ব্যাপক ভাঙ্গন ঠেকাতে সিসি ব্লক স্থাপন করতে হবে। রিটানিং ওয়াল কাজে আসছেনা। এজন্য অন্তত প্রায় এক কোটি টাকা প্রয়োজন পড়বে।

কাউখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আফিয়া আখতার জানান, স্থানীয়ভাবে এ ধরণের বড় প্রকল্প নেয়া সম্ভব নয়। বিষয়টি জেলা প্রশাসকসহ স্থানীয় সাংসদকে অবহিত করা হয়েছে। ভাঙ্গন রোধে জরুরী ভিত্তিতে ব্যবস্থা নিতে পানি উন্নয়ন বোর্ডে চিঠি পাঠানো হবে শিগগির।

Comment here