Thursday , 16 August 2018
গুইমারা মাদ্রাসার অভিভাবক প্রতিনিধি নির্বাচন

গুইমারা মাদ্রাসার অভিভাবক প্রতিনিধি নির্বাচন

স্টাফ রিপোর্টার: খাগড়াছড়ি’র গুইমারা উপজেলার একমাত্র দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটি নির্বাচনে অভিভাবক সদস্য পদে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। ২২ জুলাই বুধবার সকালে গুইমারা ছাত্র-শিক্ষক মিলনায়তনে সম্পূর্ন গনতান্ত্রিক পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে বেলা ২ টা পর্যন্ত ভোট গ্রহন চলে। গুইমারা মাদ্রাসা তত্ত্বাবধায়ক জায়নুল আবদীনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে এ অভিভাবক প্রতিনিধি নির্বাচনে প্রিজাইডিং অফিসার  হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন, গুইমারা উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সুদৃষ্টি চাকমা।
সকালে মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও গুইমারা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, নির্বাচন পরিস্থিতি পরির্দশন করেন এবং ভোটারদের স্বতস্ফুর্ত উপস্থিতি দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন। সময় প্রিজাইডিং অফিসার ও উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সুদৃষ্টি চাকমা, মাদ্রাসার তত্ত্বাবধায়ক জায়নুল আবদীন শিক্ষাক প্রতিনিধি মোঃ ইউচুপ সহ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
গুইমারা মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর প্রায় ৩২বছরের মধ্যে পরিচালনা কমিটির অভিভাবক সদস্য পদে এটাই প্রথম নির্বাচন হওয়ায় অভিভাবক ভোটার শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীর মধ্যে ব্যাপক কৌতুল লক্ষ্য করা যায়।
নির্বাচনে দাখিল(মাধ্যমিক)শাখায় আনিছুল হক, ইকবাল হোসেন, আবু তাহের ও হাফিজুর রহমান নামের  ৪জন অভিভাবক ৩টি পদের জন্য প্রতিদ্ধন্ধিতা করেন। নির্বাচনে ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেনীর ছাত্র-ছাত্রীদের ২১৯জন অভিভাবক এই নির্বাচনে ভোটার হিসেবে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। তম্মধ্যে মহিলা ভোটার ছিলেন ৯জন। পুরুষ ভোটারদের পাশাপাশি মহিলা ভোটারগণও তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে দেখা যায়। আগামী ৩বছরের জন্য প্রত্যক্ষ ভোতোদের প্রতিনিধি নির্বাচন করার লক্ষ্যে গুইমারা উপজেলা ও পার্শ্ববর্তী উপজেলা সমুহ সহ দুর দুরান্ত থেকে আগত ভোটারগণ তাদের ভোট দিতে এসে সন্তোষ প্রকাশের জন্য নির্বাচনী এ ধারা অব্যাহত রাখার দাবী জানান। অপরদিকে এবতেদায়ী(প্রাথমিক)শাখায় কোন প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী না থাকায় সাবেক ইউপি মেম্বার আহম্মদ কবির বিনাপ্রতিদ্বন্ধীতায় নির্বাচন হন।
মোট ২১৯টি ভোটারের মধ্যে ১১১টি ভোট কাষ্ট হয় এরমধ্যে মোঃ আনিছুল হক ৮৮ ভোট পেয়ে প্রথম, মোঃ ইকবাল হোসেন ৮ ভোট পেয়ে দ্বিতীয়, মোঃ আবু তাহের ৭১ভোট পেয়ে তৃতীয় এবং মোঃ হাফিজুর রহমান ৬২ ভোট পেয়ে চতুর্থস্থান অধিকার করেন। এমধ্যে প্রথম তিনজন নির্বাচিত হলেও মোঃ হানিফজুর রহমান বাদ করেন আগামী দিনের অভিভাবকদের নেতৃত্ব দেওয়া থেকে।
নব নির্বাচিত অভিভাবক সদস্য আনিছুল হক বলেন, দ্বিতীয় বারের মত বিজয়ী হওয়ায় আনন্দিত পাশাপাশি  সম্মানিত অভিভাবক ভোটারগণ মাদ্রাসার শিক্ষার মানোন্নয়ন সহ সার্বিক উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার যে দায়িত্ব অর্পন করেছেন সেটি পালনে নিবেদিতভাবে কাজ করার অঙ্গীকারের পাশাপাশি সকলের সহযোগীতা কামনা করেন।
আধুনিক ও ধর্মীয় শিক্ষার এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির সেবার লক্ষ্যে প্রার্থীরা একে অপরের বিরোধ না করে সকল প্রার্থী একই সাথে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়েছেন এটা যেন ভোটার কাছে এক নতুন ইতিহাস।
নির্বাচনের সার্বিক বিষয়ে মাদ্রাসার তত্ত্বাবধায়ক জায়নুল আবদীন জানান, ১৯৮৬ সালে গুইমারা দাখিল মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর এবারই প্রথম গনতান্ত্রিক উপায়ে অভিভাবক সদস্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আশাকরি নবনির্বাচিত প্রতিনিধিরা মাদ্রাসার উন্নয়নে নিবেদিত ভাবে কাজ করে মাদ্রাসা উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখবে। তিনি আরো বলেন পূর্বের ন্যায় বর্তমানে গুইমারা ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসায় শিক্ষার মান অনেক উন্নয়ন হয়েছে। যার ফল হিসেবে এবারের দাখিল পরীক্ষায় শতভাগ পাশের ধারাও অব্যাহত রেখেছে প্রতিষ্ঠানটি।

Share This:

BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes