চট্টগ্রাম সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

রাঙ্গুনিয়ায় যুবকের লাশ উদ্ধার

শান্তি রঞ্জন চাকমা, রাঙ্গুনিয়া: রাঙ্গুনিয়ায় কর্ণফুলী নদী থেকে ভাসমান অবস্থায় গতকাল রোববার মোহাম্মদ রাজু (২৪) নামের এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতের বাড়ি স্বনির্ভর রাঙ্গুনিয়া ইউনিয়নের ব্রহ্মোত্তর এলাকার নুরুল আলমের পুত্র। রাজুর রহস্যজনক মৃত্যুকে ঘিরে কোদালা ও চন্দ্রঘোনা-কদমতলী এলাকায় চরম উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। পরিকল্পিত ভাবে রাজুকে হত্যা করার অভিযোগে এবং দোষীদের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবীতে কর্ণফুলী নৌ চলাচল প্রায় ঘন্টাখানেক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় স্থানীয় গ্রামবাসী। প্রশাসন তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেয়ার আশ^াসে নৌ চলাচল স্বাভাবিক হয়।

জানা যায়, উপজেলার স্বনির্ভর ইউনিয়নের ব্রহ্মোত্তর গ্রামের মোহাম্মদ রাজু গত শুক্রবার দুপুরে এক বন্ধুর ফোন পেয়ে চন্দ্রঘোনায় চলে আসে। সন্ধ্যায় সে সহ তার অপর দুই বন্ধু চন্দ্রঘোনা আধুরপাড়ার মৃত আইয়ুব আলী মল্লার পুত্র মো. মোবারক (২৫) ও মৃত মো. ইসমাঈলের পুত্র মো. রহিম (২৩) কোদালা বাজারঘাট এলাকায় মো. করিমের সাথে দেখা করে। সেখানে তারা একসাথে মাদক পান করে। মদ্যপ অবস্থায় তাদের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। করিমের সাথে এই তিন বন্ধুর হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে করিম বাজারে উঠে তাকে ছুরি দিয়ে মেরেছে বলে এলাকার লোকজনদের ডাকাডাকি করে।

এলাকার লোকজন একত্রিত হয়ে তাদের তিনজনকে লাঠি ও বাঁশ দিয়ে বেধম মারধর করে। খবর পেয়ে কোদালা বিট পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মো. রহিমকে উদ্ধার করে নিয়ে গেলেও নিখোঁজ থাকে রাজু ও মোবারক। ঘটনার একদিন পর শনিবার কর্ণফুলী নদীর বালুগোট্টা আহত অবস্থায় মো. মোবারককে উদ্ধার করা হয়। নিখোঁজের দুইদিন পর রোববার কর্ণফুলী নদীর মরিয়মনগর ইউনিয়নের রশিদিয়া পাড়া ঘাট থেকে রাজুর লাশ পাওয়া যায়। যুবকের রহস্যজনক মৃত্যুতে তদন্ত করছে রাঙ্গুনিয়া থানা পুলিশ।