Thursday , 16 August 2018
আদিবাসী নিয়ে পাহাড়ে পাল্টা-পাল্টি কর্মসূচি

আদিবাসী নিয়ে পাহাড়ে পাল্টা-পাল্টি কর্মসূচি

স্টাফ রিপোর্টার: আদিবাসী দিবস উদযাপনকে কেন্দ্র করে পাহাড়ি-বাঙ্গালি পাল্টা-পাল্টি কর্মসূচি পালন করে।  তিন পার্বত্য জেলার সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বসবাসরত ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠীরা আদিবাসী নয় রং বাংলাদেশে বাঙ্গালীরাই আদিবাসী দাবি করে ৯আগষ্ট বৃহস্পতিবার আর্ন্তজাতিক আদিবাসী দিবসে বাংলাদেশে বিশেষ করে পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসরত ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠীদের আদিবাসী হিসেবে স্বীকৃতি আদায়ের অপচেষ্টা ও বাংলাদেশে আদিবাসী নিয়ে ধু¤্রজাল সৃষ্টিকারীদের দেশের প্রচলিত আইনে দোষী সাব্যস্থ করে শাস্তির দাবীতে “বাংলাদেশে বাঙালিরাই আদিবাসী ” শীর্ষক এক মানববন্ধন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে জিরো পয়েন্টে অনুষ্ঠিত হয়।

পার্বত্য বাঙালী ছাত্র পরিষদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আমির হোসাইনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত ঘন্টা ব্যাপী এমানব বন্ধনে, পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদ চবি শাখার সভাপতি আতাউর রহমান, সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল করিম, সাধারণ সম্পাদক ইখতিয়ার ইমন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ হারুন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আওয়াল, অর্থ সম্পাদক আল মামুন, দপ্তর সম্পাদক নাইম ইসলাম, প্রচার সম্পাদক মাসুদ রানা ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ ছাত্র/ছাত্রীরা উপস্থিত ছিলেন। এসময় বক্তারা, বাংলাদেশের সংবিধানে যাদের ক্ষুদ্র-নৃ-গোষ্ঠী বলা হয়েছে আজ তারাই তাদেরকে আদিবাসী বলে দাবী করছে যা সংবিধান সাংঘর্ষিক। এসময় আদিবাসী নিয়ে যারা অপ-প্রচার চালাচ্ছে তাদের আইনের আওতায় আনার দাবী জানানো হয়। বক্তারা আরো বলেন, বাংলাদেশে আর কেউ নয় বাঙালীরাই আদিবাসী। পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার দপ্তর সম্পাদক নাইম উদ্দিনের প্রেক্ষিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে দেশের সংবিধান পরিপন্থী কাজে লিপ্ত দোষীদের এসব ঘৃনিত কাজের প্রতিবাদ ও  নিন্দা জানানো হয়।

এদিকে বিশ্ব আদিবাসী দিবস পালন করেছে বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরাম খাগড়াছড়ি শাখা ও পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি এমএন লারমা দল। বৃহস্পতিবার সকালে আলাদা আলাদা ভাবে দিসবটি পালন করে সংগঠন দুটি। সকালে খাগড়াছড়ি সদরের রাজ্যমনি পাড়া থেকে র‌্যালি বের করে বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরাম খাগড়াছড়ি জেলা শাখা। র‌্যালিটি শহীদ কাদের সড়ক হয়ে শহরের শাপলা চত্তর ঘুরে এসে য়ংড বৌদ্ধ বিহারে এসে শেষ করে পরে মানববন্ধন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ মারমা স্টুডেন্ট কাউন্সিলের কলেজ শাখার সভাপতি মাপ্রু মারমা, ত্রিপুরা স্টুডেন্ট ফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি বিপুল ত্রিপুরা, নারী নেত্রী নমিতা চাকমা। এতে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার আহ্বায়ক চাইথোয়াই মারমা। র‌্যালী ও আলোচনা সভায় আদিবাসী ফোরাম, আদিবাসী কোয়ালিশন, বাংলাদেশ মারমা স্টুডেন্ট কাউন্সিল, বাংলাদেশ ত্রিপুরা স্টুডেন্ট ফোরামসহ বিভিন্ন সামজিক সংগঠন অংশ গ্রহন করে।

অপরদিকে সকাল সাড়ে ১০ টায় খাগড়াছড়ি সদরের খাগড়াপুর কমিউনিটি সেন্টারে আলোচনা সভার আয়োজন করে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি এমএন লারমা দল। আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম জন সংহতি সমিতি এমএন লারমা দলের কেন্দ্রীয় কমিটির তথ্য ও প্রচার সম্পাদক সুধাকর ত্রিপুরা। এছাড়া বক্তব্য রাখেন, জেএসএস সদর উপজেলা শাখার সভাপতি কিরন চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সুমেধ চাকমা, সমাজকর্মী রবি শংকর তালুকদার। সভায় সভাপতিত্ব করেন জন সংহতি সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির রাজনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক বিভু রঞ্জন চাকমা।

অন্যদিকে একই সময়ে শহরের শাপলা চত্তরে আদিবাসী স্বীকৃতির দাবী সংক্রান্ত সকল অপপ্রচার বন্ধের দাবীতে খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন করেছে পার্বত্য অধিকার ফোরাম ও বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদ। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, পার্বত্য অধিকার ফোরাম ও বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের সভাপতি মোঃ মাঈন উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক এসএম মাসুম রানা, যুগ্ন সম্পাদক মোঃ জাহিদুল ইসলাম, বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের মানিকছড়ি উপজেলা সভাপতি মোক্তাবির হোসেন, দীঘিনালা উপজেলার সভাপতি আলামিন হোসেন, সাবেক সভাপতি মোঃ সাদ্দাম হোসেন, পানছড়ি উপজেলা সভাপতি সাইফুল ইসলাম চৌধুরী প্রমুখ।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, দেশে কোন আদিবাসী না থাকা সত্বেও পাহাড়ীরা নিজেদের আদিবাসী দাবী করে রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। সরকারকে আদিবাসী স্বীকৃতি সংক্রান্ত সকল অপপ্রচার বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়ার দাবী জানান বক্তারা।

Share This:

BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes