খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদগুইমারাপাহাড়ের সংবাদমাটিরাঙ্গামানিকছড়িরামগড়লক্ষ্মীছড়িশিরোনামস্লাইড নিউজ

সাংবাদিকরাই সত্য প্রকাশ করে সমাজের আমূল পরিবর্তন আনতে পারে- গুইমারা রিজিয়ন কমান্ডার

স্টাফ রিপোর্টার: বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা একটি সমাজের আমূল পরিবর্তন করে দিতে পারে জানিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রামে সকল সম্প্রদায়ের মানুষের সম্প্রীতি রক্ষার ক্ষেত্রে সাংবাদিকদের লেখনী গুরুত্ব ভূমিকা পালন করতে পারে, অসৎ উদ্দেশ্য নিয়ে অপপ্রচার, বা সম্প্রীতি নষ্ট হয় এমন সংবাদ পরিবেশন না করে সঠিক ও সত্য সংবাদ পরিবেশন করতে সাংবাদিকদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন ২৪আর্টিলারী ব্রিগেড ও গুইমারা রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম সাজেদুল ইসলাম।

১৬সেপ্টেম্বর রবিবার বেলা ১১টায় গুইমারা রিজিয়ন কনফারেন্স হলে রিজিয়নের আওতাধীন খাগড়াছড়ি’র গুইমারা, মাটিরাঙ্গা, রামগড়, মানিকছড়ি ও লক্ষ্মীছড়িসহ ৫উপজেলায় কর্মরত পেশাজীবি সাংবাদিকদের সাথে মত বিনিময়কালে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, বর্তমান সময়ে পার্বত্য চট্টগ্রামে বিরাজমান শান্ত পরিবেশকে নষ্ট করতে একটি স্বাথান্বেষী কু-চক্রীমহল বিভিন্ন ধরণের অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের ব্যাপারে সজাগ থেকে শান্তি ও সম্প্রীতির মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রামের কাংখিত উন্নয়নে কলম সৈনিক সাংবাদিকদের ভূমিকা রাখার জরুরী। নিরাপত্তা ও শান্তি প্রতিষ্ঠায় পাহাড়ে সেনাবাহিনী নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

একজন পেশাজীবিক সাংবাদিক তার লেখার মাধ্যমে সমাজের অসাড় ও অসংগতি তুলে ধরে ন্যায় ও সত্য প্রতিষ্ঠায় যেমন করে ভূমিকা রাখে, তেমনি একটি মিথ্যা প্রতিবেদন ও অপসাংবাদিকতা একটি সমাজের শান্তি পরিবেশ নষ্ট করার জন্য যথেষ্ট। দেশ ও দেশের মানুষ সাংবাদিকদের নিকট সমাজের সঠিক চিত্রটাই প্রত্যাশা করে।

পাহাড়ে বিভিন্ন সন্ত্রাসীদের চাঁদাবাজি ও সন্ত্রাসী কার্যকলাপ কোনোভাবেই সহ্য করা হবে না, তা কঠোর হস্তে দমন করার প্রত্যয় ব্যক্ত করে তিনি আরো বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসরত বিভিন্ন জাতিসত্ত্বার মধ্যে কোন বিভেদ নেই, সকলেই সমান। মানবতাই আমাদের কাছে বড় বিষয়। সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করতে সেনাবাহিনী সবসময় প্রস্তুত।

এছাড়াও পেশাজীবি সাংবাদিকদের দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে সার্বিক সহযোগী করার আশ্বাস দিয়ে সকলের সমান অংশগ্রহণে সুন্দর সমাজ বিনির্মাণে একযোগে কাজ করতে সাংবাদিকদের প্রতি আহবান জানিয়ে গুইমারা রিজিয়ন কমান্ডার আরো বলেন আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে সেনাবাহিনী বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করছে এবং আগামীতেও অব্যাহত থাকবে।

এসময় গুইমারা রিজিয়নের বিএম মেজর ফাহিম মোনায়েম হোসেন, জিএসওটু(ইন্টেলিজেন্ট) মেজর মঈনুল আলম, জিএসওটু(এডুকেশন) মোহাম্মদ পারভেজ সহ ৫উপজেলায় কর্মরত বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক্স ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।