জাতীয় সংবাদপাহাড়ের সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

শিক্ষা দিবসে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পিসিপি’র বিক্ষোভ মিছিল

ডেস্ক রিপোর্ট: মহান শিক্ষা দিবসে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে পার্বত্য চট্টগ্রামে পূর্ণস্বায়ত্তশাসনে আন্দোলনরত ছাত্র সংগঠন বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি)। ১৭ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ১১ টায় মধুর কেন্টিন থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে কলা ভবন প্রদক্ষিণ করে রাজু ভাষ্কর্যে গিয়ে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি বিনয়ন চাকমার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সহসাধারণ সম্পাদক বরুন চাকমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের ঢাকা শাখার আহ্বায়ক কইঞ্জনা মারমা ও পিসিপি’র ঢাকা শাখার সহ-সভাপতি শুভাশীষ চাকমা। সমাবেশ পরিচালনা করেন পিসিািপ’র কেন্দ্রীয় সহসভাপতি বিপুল চাকমা। পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক  রোনাল চাকমা স্বাক্ষরিত সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক প্রেসবার্তায় এ খবর জানানো হয়।

সমাবেশে বক্তারা পার্বত্য চট্টগ্রামসহ দেশের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর ন্যায্য কোটা বাতিল করার চক্রান্তের সমালোচনা করে  বলেন, এ জনগোষ্ঠীসমূহ এমনিতেই নানা বৈষম্য ও নিপীড়নের শিকার, তার ওপর তাদের ন্যায্য কোটা কেড়ে নেওয়ার জন্য সরকার উঠে পড়ে লেগেছে। কোটা পর্যালোচনা কমিটির ন্যায্য কোটা বাতিলের সুপারিশ অগ্রহণযোগ্য ও অযৌক্তিক। এটা পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে পিছিয়ে রাখার ষড়যন্ত্র ছাড়া কিছুই নয়। সমাবেশে বক্তারা, ন্যায্য কোটা বাতিলের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলার জন্য সকল জাতিসত্তার প্রতি আহ্বান জানান ।

বক্তারা আরো বলেন,  সকল জাতিসত্তার মাতৃভাষার মাধ্যমে প্রাথমিক শিক্ষা প্রদানসহ পিসিপি’র শিক্ষাসংক্রান্ত ৫ দফা দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসছে। কিন্তু সরকার এখনো সে দাবিসমূহ বাস্তবায়ন করছে না। সরকার আন্দোলনের মুখে প্রাক প্রাথমিকে ৫ টি জাতিসত্তার মাতৃভাষা বই প্রদান করলেও তা পর্যাপ্ত নয়। এ ব্যাপারে সরকারের  যথাযথ পদক্ষেপ নিতে দেখা যাচ্ছে না।

বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের দমন পীড়নের অন্যতম লক্ষ্য ছাত্র সমাজ। একারণে ছাত্রসমাজের ওপর অব্যাহতভাবে দমনপীড়ন চলছে । এ দমনপীড়নে প্রশাসন ও  তাদের মদদপুষ্ঠ সন্ত্রাসী কর্তৃক ছাত্র নেতারা হত্যার শিকার হচ্ছেন। যার জ¦লন্ত দৃষ্টান্ত হচ্ছে,  মদদপুষ্ট জেএসএস সংস্কার-নব্য মুখোশবাহিনী সন্ত্রাসী কর্তৃক রাষ্ট্রীয় বাহিনীর আবাসস্থলের সন্নিকটে  ছাত্র নেতা তপন-এল্টন,  যুব নেতা পলাশ চাকমাসহ ৭ জনকে প্রকাশ্য দিবালোকে হত্যার ঘটনা।

সমাবেশে বক্তারা পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর ন্যায্য কোটা বহাল রাখার জোর দাবি জানান।বক্তারা সকল জাতিসত্তার মাতৃভাষায় প্রাথমিক শিক্ষা প্রদানের দাবিসহ পিসিপি’র শিক্ষা সংক্রান্ত ৫ দফা দাবিনামা বাস্তবায়নের দাবি জানান।