খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদজাতীয় সংসদ নির্বাচনপাহাড়ের সংবাদবান্দরবান সংবাদরাঙ্গামাটি সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

তিন পার্বত্য জেলায় নৌকা বিজয়ী

ডেস্ক রিপোর্ট: একাদশ সংসদ নির্বাচনে গতকাল রোববার (৩০ ডিসেম্বর) সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোট প্রদান চলে। এরপর গণনা করা হয়। গণনা শেষে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের কার্যালয়ে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা  তিনটি আসনের চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা দেন।

রাঙামাটি : ২৯৯ নং পার্বত্য রাঙামাটি সংসদীয় আসনে গতকাল রাত ১১.৫৮ টার সময় পর্যন্ত ২০৩ টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৮৪ টি কেন্দ্রের ফলাফল জেলা রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় থেকে পাওয়া গেছে। এতে ১,৫৬,৮৪৪ ভোট পেয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী (নৌকা) দীপংকর তালুকদার এগিয়ে আছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন অনিবন্ধিত আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (পিসিজেএসএস) সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী (সিংহ মার্কা) বর্তমান সংসদ সদস্য ঊষাতন তালুকদার পেয়েছেন মোট ৯৪,৪৯৫ ভোট। অন্যান্য প্রার্থীদের মধ্যে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মনি স্বপন দেওয়ান (ধানের শীষ) পেয়েছেন ৩১০১৭ ভোট। এরশাদের নেতৃত্বাধীন জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রার্থী (লাঙ্গল) এডভোকেট পারভেজ তালুকদার ৪৭০ ভোট। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ’র প্রার্থী (হাত পাখা) জসীম উদ্দীন ১৫৪৬ ভোট। বাংলাদেশ বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির প্রার্থী (কোদাল) জুঁই চাকমা ৪৪৫ ভোট। অবশিষ্ট ১৯ কেন্দ্রে মোট ভোটার ২৫০৫৭ জন। অর্থাৎ দীপংকর তালুকদার বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

খাগড়াছড়ি : আমাদের খাগড়াছড়ি ২৯৮নং আসনে বেসরকারি ফলাফল অনুযায়ী ১৮৭টি কেন্দ্রের মধ্যের মধ্যে বেসরকারিভাবে ১৮৬টি কেন্দ্রে ২ লাখ ৩৬ হাজার ১৫৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন (নৌকা) প্রার্থী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা।
তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউপিডিএফের সিংহ প্রতীকের নতুন কুমার চাকমা পেয়েছে ৫৯,২৫৭ ভোট। গতকাল রবিবার রাতে খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলাম এ ফলাফল ঘোষণা করেন।

এছাড়াও (ধানের শীষ) প্রতীকে বিএনপির প্রার্থী মো. শহীদুল ইসলাম ভূইয়া ফরহাদ পেয়েছেন ৫১,২৬৬ ভোট, ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী হাত পাখার প্রার্থী আ. জব্বার গাজী পেয়েছেন ২৯৩৫, জাতীয় পার্টির প্রার্থী লাঙ্গল প্রতিকে সোলায়মান আলম শেঠ পেয়েছেন ২৩৪০ ভোট পেয়েছে। অপরদিকে- দিঘিনালা উপজেলার নারাইছড়ি দুর্গম কেন্দ্র হওয়ায় ভোটের ফলাফল না পাওয়ায় রির্টারিং অফিসার চুড়ান্ত ফলাফল সোমবার ঘোষণা করবেন বলে জানান। মোট ভোটার সংখ্যা ৪ লক্ষ ৪১ হাজার ৮৩৩ জন।

বান্দরবান : ৬ষ্ঠ বারের মত সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলেন বান্দরবানের আওয়ামী লীগ প্রার্থী বীর বাহাদুর উশৈসিং। তিনি পেয়েছেন ১৪২৬৩৫ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি প্রার্থী সাচিং প্রু জেরী পেয়েছেন ৫৮৪৮৭ ভোট। ৮৪১৪৮ ভোটে বীর বাহাদুর বিজয়ী হলেন বান্দরবান ৩০০ নং আসনে। এদিকে জয়ের খবর ছড়িয়ে পড়লে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী সমসর্থকদের মধ্যে আনন্দ ছড়িয়ে পড়ে। শহরে বিজয় মিছিল করেছেন নেতাকর্মীরা। বিভিন্ন জায়গায় মিষ্টি বিতরণ হয়েছে। ১৯৯১ সাল থেকে বান্দরবান আসনে বীর বাহাদুর উশৈসিং জয়ী হয়ে আসছেন। বান্দরবান বাজারের ব্যবসায়ী লাল মহন বাহাদুরের ছেলে এক সময়ের ফুটবল খেলোয়াড় ও রেফারি বীর বাহাদুর উশৈসিং ৯১ সালে সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে জয়ী হন। পরে ১৯৯৬, ২০০১, ২০০৮ ও ২০১৫ সালে ৫ বার ৩০০ নং আসনে নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। শিক্ষাগত যোগ্যতায় তিনি এমএ পাশ। উপমন্ত্রী পদ মর্যাদার পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নিযুক্ত হন। এছাড়া বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন তিনি। এছাড়া বেসরকারি বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় কমিটির সদস্য ছিলেন। বর্তমানে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে রয়েছেন। এদিকে জয়ী হওয়ার পর বীর বাহাদুর উশৈসিং ভোটারদের প্রতি অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।