কাউখালীপাহাড়ের সংবাদরাঙ্গামাটি সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

কাউখালীর ঘাগড়ায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ড: ৩০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি

kaukhali Fire news 29.02.16 2 (1)জিয়াউর রহমান জুয়েল, কাউখালী: কাউখালীতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে তিন দোকান ও তিন বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ২৯ ফেব্রুযারি সোমবার বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে ঘাগড়া বাজারে এ ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। বৈদ্যুতিক সর্টসার্কিট থেকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হতে পারে  বলে ধারনা করছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা।

স্থানীয়রা জানায়, হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাৎসরিক মহোৎসব থাকায় অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত দোকানগুলো বন্ধ ছিলো। যার ফলে কোনো মালামাল উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে এলাকার লোকজন ছুটে এসে আগুন কিছুটা নিয়ন্ত্রনে আনে। পরে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ৪০ মিনিট চেষ্টার পর আগুন সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রনে আনে। এসময় নারায়ন মিত্রের মুদি দোকান, রফিকুল ইসলামের ফার্নিচারের দোকান, তাজুল ইসলামের ইলেক্ট্রনিক্সের দোকান, শাহাদাৎ হোসেন সামুনের বসত ঘর, রিয়াদ হোসেনের বসত ঘর, ধীমান বড়–য়ার মোবাইলের দোকান সম্পূর্ণ পুড়ে যায়। ক্ষতিগ্রস্থরা তাদের প্রায় ৪০ লক্ষাধিক টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে দাবী করেছেন।

রাঙামাটি ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক মোঃ গোলাম মোস্তাফা জানান- অগ্নিকান্ডে তিনটি দোকান ও তিনটি বসতঘর সম্পূর্ণ পুড়ে যায়। এতে প্রায় ৩০ লাধিক টাকা বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করছেন। বৈদ্যুতিক সর্টসার্কিট থেকেই আগুনের সূত্রপাত বলে জানান এই কর্মকর্তা। এদিকে অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন রাঙামাটির জেলা প্রশাসক সামসুল আরেফিন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আফিয়া আখতার, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা কমল বরণ সাহাসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা। এসময় ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারদের মাঝে প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাৎক্ষনিক পরিবার প্রতি ৫ হাজার টাকা ও ১০ কেজি চাউল বিতরণ করা হয়।

সম্প্রতি ক্ষতিগ্রস্থ্যদের মাঝে নগদ অর্থ ও ঢেউটিন প্রদান

এদিকে সম্প্রতি অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত তিনটি পরিবারের মঝে নগদ অর্থ ও ঢেউটিন প্রদান করেছে কাউখালী  উপজেলা প্রশাসন। সোমবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আফিয়া আখতার তিনটি পরিবারকে ছয় হাজার টাকার চেক ও দুই বান করে ঢেউ টিন তুলে দেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এ্যানি চাকমা কৃপা, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা কমল বরণ সাহা, স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল মোতালেব, পাইচামং মারমা প্রমূখ।
নগদ অর্থ সহায়তা ও ঢেউটিন পেয়ে সরকার ও প্রশাসনের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন অগ্নিকান্ডে নিঃস্ব হওয়া উপজেলার কাশখালী গ্রামের আব্দুল মতিন, রাঙ্গীপাড়া গ্রামের আবুল কালাম এবং বড়ডলু পাড়া গ্রামের অংচাপ্রু মারমা।

Comment here