খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদপাহাড়ের সংবাদমাটিরাঙ্গাশিরোনামস্লাইড নিউজ

সন্ত্রাসী কার্যকলাপের বিরুদ্ধে ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক এর মানববন্ধন

মাটিরাঙ্গা প্রতিনিধি: পার্বত্য এলাকার উপজাতীয় আঞ্চলিক সংগঠন “ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ,প্রসিত) গ্রুপ” কে প্রতিহত করার দাবীতে মানবন্ধন ও আলোচনা সভা করেছে সাধারণ জুম্মজাতি ও প্রসিত গ্রুপকর্তৃক সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যরা।

১৯ অক্টোবর শনিবার সকালের দিকে মাটিরাঙ্গা পুরাতন হাসপাতাল মোড় থেকে একটি মিছিল বের হয়। শতাধিক ব্যক্তিবর্গ অংশ নেয়া মিছিলটি মাটিরাঙ্গা পৌর সদরের প্রধান সড়ক ঘুরে মাটিরাঙ্গা কলাবাজার ভাই ভাই বোডিং সম্মুখে মানববন্ধন করে। এরপর তারা আলোচনা সভা করেন ভাই ভাই বোডিং এর ২য় তলার ছাদে। সভায় বক্তারা- সম্প্রতি ঐক্য করার নামে যারা প্রচারণায় নেমেছে তাদের সকল ষড়যন্ত্র ও ষড়যন্ত্রকারীদের প্রতিহত করার আহবান জানান। তারা ইউপিডিএফ প্রসিত গ্রুপের সন্ত্রাসীদের ফাঁদে পা না-দেওয়ার পরামর্শ দেন । এ সময় ইউপিডিএফ (প্রসিত) নিষিদ্ধ করার দাবী জানান তারা ।

সভায় মাটিরাঙ্গায় অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে উপজেলার সকল জনসাধারণ,ভুক্তভোগি সাধারণ জুম্মপাহাড়ি নেতৃবৃন্দ ও ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক সংগঠন জনগনের এ দাবীর সাথে ঐক্যমত পোষণ করে মানববন্ধনে যোগদেন। মাটিরাঙ্গা উপজেলার সর্বস্তরের পাহাড়ী জুম্মজাতির আয়োজনে স্হানীয় কার্বারী বিনয় চাকমার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্হিত ছিলেন মাটিরাঙ্গা উপজেলার ইউপিডিএফ গণতান্রিকের সমন্বয়ক সুলেন চাকমা।

সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন ,মাটিরাঙ্গা উপজেলা ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিকের সহকারি সমন্বয়ক মঙ্গল এিপুরা, তাইন্দং ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার ফনিভূষণ চাকমা, লাচাইমং কার্বারী, মাটিরাঙ্গা কমলা কান্ত কার্বারী পাড়ার কার্বারী যুদ্ধমনি চাকমা প্রমুখ।

আলোচনা সভার প্রধান অতিথি মাটিরাঙ্গা উপজেলা সমন্বয়ক ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিকের সুলেন চাকমা বলেন, ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক পাহাড়ী জুম্ম জনগনের এ দাবীর সাথে সংহতি প্রকাশ করছি। দীর্ঘদিন ধরে পাহাড়ে ইউপিডিএফ প্রসিত গ্রুপ যেভাবে পাহাড়ি জুম্মজাতির আন্দোলনের নামে প্রতিনিয়ত পাহাড়ে চাঁদাবাজি করে যাচ্ছে তা অনেক দিন পর সাধারন পাহাড়ি জুম্মজাতি বুঝতে পেরেছে, তাই আজকে মাটিরাঙ্গা উপজেলার ভুক্তভোগি সাধারন পাহাড়ি জুম্মজাতি অন্যায় ও অত্যাচারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন। ইউপিডিএফ প্রসিত গ্রুপ শান্ত পাহাড়ী অঞ্চলকে অশান্ত করে রেখেছে। আমরা পাহাড়ে আর কোন মায়ের কান্না দেখতে চাইনা আমরা পাহাড়ে সকল জাতিগোষ্টি একসাথে বসবাস করতে চাই।

তিনি আরো বলেন বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার ১৯৯৭ সালের ২রা ডিসেম্বর পার্বত্যাঞ্চলের আঞ্চলিক সংগঠন জেএসএস এর সভাপতি জ্যােতিন্দ্র বোধিপ্রিয় শন্তুলারমা সাথে শান্তিচুক্তি করে। শান্তিচুক্তির সময় জেএসএসের সদস্যরা অস্ত্রজমা দিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যায়। কিন্তু চুক্তিকে কালো চুক্তি বলে পাহাড়ে গঠন হলো প্রসিত বিকাশ খীসার আঞ্চলিক রাজনৈতিক সংগঠন ইউপিডিএফ । যা গঠনের পর অশান্ত হয়ে পড়ে পার্বত্যাঞ্চল।