অলিয়ে কামেলের আনুগত্য অনুসরণে প্রতিষ্ঠা হবে শান্তি ও সাম্য-দিদারুল হক মাইজভাণ্ডারী

ফটিকছড়ি প্রতিনিধি: আঞ্জুমানে মোত্তাবেয়ীনে গাউছে মাইজভাণ্ডারীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদের সভাপতি আলহাজ্ব শাহসুফি ডাঃ সৈয়দ দিদারুল হক মাইজভাণ্ডারী (মঃ)’

চন্দ্রঘোনায় স্বেচ্ছাসেবকলীগের উঠান বৈঠক
রাঙ্গুনিয়া শেখ রাসেল এভিয়ারি পার্কের ক্যাবল কার চালু
পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ১৭তম কাউন্সিল সম্পন্ন
ফটিকছড়ি প্রতিনিধি: আঞ্জুমানে মোত্তাবেয়ীনে গাউছে মাইজভাণ্ডারীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদের সভাপতি আলহাজ্ব শাহসুফি ডাঃ সৈয়দ দিদারুল হক মাইজভাণ্ডারী (মঃ)’বলেছেন, “ব্যক্তি, পরিবার, সমাজ, তদুপরি সমগ্র বিশ্ব আজ অস্থির, অশান্ত। তৃষ্ণাতুর মানবজাতি আজ শান্তি ও মুক্তির জন্য উন্মুখ, দিশেহারা। কঠিন ঈমানি পরীক্ষার এই যুগে মহান আল্লাহর মনোনীত নায়েবে রাসুল অর্থাৎ আউলিয়া কেরামের দর্শনকে শক্তভাবে ধারণ, লালন ও চর্চা করতে হবে”।
তিনি গাউসুল আযম হযরত মাওলানা শাহসুফি সৈয়দ আহমদউল্লাহ মাইজভাণ্ডারী (কঃ)’র ১১৩-তম পবিত্র ওরশ শরীফে আগত ভক্ত-মুরদ-জায়েরীন গনের উদ্দেশ্যে বক্তব্য প্রদানকালে এসব কথা বলেন৤ আরো বলেন, ‘দরবারে গাউসুল আযম মাইজভাণ্ডারী এবং এই তরিকাকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠা সমস্ত কুপ্রথা, কুসংস্কার, বিকৃতি এবং বিভ্রান্তি থেকে মুক্তির জন্য অছি এ গাউসুল আযম শাহসুফি সৈয়দ দেলাওর হোসাইন মাইজভাণ্ডারীর দিকনির্দেশনা যথাযথভাবে অনুসরণের বিকল্প নেই। তার জীবনদর্শনের অনুসরণে আমিত্ব পরিহারপূর্বক খাতেমুল আউলিয়া গাউসুল আযম মাইজভাণ্ডারী (কঃ)’র আনুগত্যপূর্ণ অনুসরণের মাধ্যমেই মিলবে ইহকালীন ও পরকালীন শান্তি, মুক্তি ও মর্যাদা।” পরে  দেশ, জাতি ও সমগ্র বিশ্ব মানবতার কল্যাণ কামনায় মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত শেষে উপস্থিত ভক্ত জায়েরিনদের মাঝে নেয়াজ তাবাররুক বিতরণ করা হয়।
ওরশ শরীফের আয়োজন ব্যবস্থাপনা সহযোগিতায় যারা নিয়োজিত ছিলেন, প্রশাসনিক কর্মকর্তা, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, আঞ্জুমানে মোত্তাবেয়ীনে গাউছে মাইজভাণ্ডারীর কেন্দ্রসহ বিভিন্ন দায়রা ও আঞ্চলিক শাখার খাদেমানবৃন্দ, ওরশ শরীফ সুপারভিশন কমিটির বিভিন্ন বিভাগে দায়িত্বপালনকারী তত্ত্বাবধায়কসহ স্বেচ্ছাসেবক-খাদেমানবৃন্দ, এলাকাবাসীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও মোবারকবাদ জানিয়েছেন গাউছিয়া আহমদিয়া মঞ্জিলের  নায়েব মোন্তাজেম ও ওরশ শরীফ সুপারভিশন কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী শাহজাদা সৈয়দ হোসেইন রাইফ নুরুল ইসলাম (রুবাব) মাইজভাণ্ডারী।