খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদপাহাড়ের সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

অসহায়দের মুখে হাসি ফোটাতে একযোগে কাজ করতে হবে- কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, এমপি

স্টাফ রিপোর্টার: খাগড়াছড়ির সংসদ সদস্য ও শরণার্থী টাস্কফোর্স চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা বলেছেন, মহামারীর কারণে জেলার অনেক পরিবার অসহায় হয়ে পড়েছে। তাঁদের মুখে হাসি ফোটাতে সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে। মহামারী মোকাবিলায় সরকারের জারি করা বিধিনিষেধ কার্যকরের জন্য বেসামরিক ও সামরিক প্রশাসন একযোগে অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন। আমরা যদি নিজ থেকে সচেতন না হই তাহলে কঠিন পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে। প্রধানমন্ত্রী এই দেশের কোন মানুষকেই খাবারের কষ্টে রাখবেন না। আমরা সব সময় আপনাদের পাশে থাকবো। তাই সকলের উচিত সরকারি স্বাস্থ্যবিধির প্রতি সম্মান দেখানো।

৬জুলাই মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপর পর্যন্ত জেলার ৬ উপজেলার ৩ হাজার পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণকালে, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও শরণার্থী টাস্কফোর্স চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি এসব কথা বলেন। বিতরণকৃত খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে রযেছে দশ কেজি চাল, দুই কেজি আলু এবং এক কেজি করে ডাল, তেল এবং পেয়াজ রয়েছে।
জেলায় লক ডাউনের কারণে কর্মহীন অসহায় ও দরিদ্র জনগোষ্ঠির সাড়ে পাঁচ হাজার পরিবারের মাঝে চাল-ডাল-তেলসহ প্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্য বিতরণ শুরু করেছে আওয়ামীলীগ। সরকারি স্বাস্থ্যবিধি মেনে খোলা মাঠেই আয়োজন করা হয়েছে বিতরণ কার্যক্রম।

সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা আরও বলেন, সকল মানুষ করোনা থেকে রক্ষা পেতে নিরাপদে থাকতে হবে। সবসময় মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। সকল প্রকার সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। তাহলে পাহাড়ের মানুষ মহামারী করোনা ভাইরাস থেকে অনেক বেশি মুক্ত থাকতে পারবো। সচেতন না হলে এই মহামারী থেকে রক্ষা পাওয়া দুরুহ হয়ে উঠবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মংসুইপ্রæ চৌধুরী অপু, সাবেক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি কল্যাণ মিত্র বড়–য়া ও মংক্যচিং চৌধুরী, জেলা আইনজীবি সমিতি’র সভাপতি এড. আশুতোষ চাকমা, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সা: সম্পাদক শাহিনা আকতার, জেলা পরিষদ সদস্য খোকনেশ্বর ত্রিপুরা, শতরুপা চাকমা, জেলা আওয়ামীলীগের নেতা সুদর্শী চাকমা, জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পার্থ ত্রিপুরা জুয়েল, জেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক চন্দন কুমার দে, খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিত রায়দাশ, জেলা যুব মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ফারজানা আজম, জেলা কৃষক লীগের আহবায়ক পিন্টু ভট্টাচার্য্য ও সা: সম্পাদক খোকন চাকমা এবং জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি টেকো চাকমা উপস্থিত ছিলেন।

জেলা আওয়ামীলীগের সা: সম্পাদক ও খাগড়াছড়ি পৌরসভার মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী জানান, করোনাকালীন এই মানবিক সহায়তা কার্যক্রমে জাতি-ধর্ম-দল-মত নির্বিশেষে সকলকে অর্ন্তভূক্ত করা হয়েছে। জেলাশহর ছাড়াও মাটিরাঙা, গুইমারা, মাটিরাঙা, মানিকছড়ি, রামগড় ও ল²ীছড়িতে মঙ্গলবার এ ত্রাণ দেয়া হয়েছে। বুধবার বাকী তিনটি উপজেলায় ত্রাণ বিতরণ করা হবে। এই কার্যক্রমে প্রাথমিকভাবে পঞ্চাশ লক্ষ টাকার ত্রাণ দেয়া হচ্ছে।