প্রবন্ধ ও কবিতা

করোনা সচেতনতামূলক কবিতা: “ ঘরে যাও ”

” ঘরে যাও “
ডা. আঁখি আহম্মেদ
দেশমাতা আজ ভিষন চিন্তায়-
বলছে ডেকে…
ওরে আমার দামাল ছেলে –
ক্লান্তি ভুলে ছুটছিস কেন,
হাসতে হাসতে তুচ্ছ ভেবে
রৌদ্র ক্ষরায় বৃষ্টি জলে?
যত আসুক মহামারি
বন্যা কিংবা ঘূর্নিঝড়,
যাসনে ছুটে বাইরে এমন
প্রাণের একটু মায়া কর।
মা যে তোকে আগলে রাখবো
সকল বিপদ সামলে নেবো,
আয়রে আমার দামাল ছেলে
এবার একটু ঘরে বোস।
ওরে,রাস্তার মোড়ে আড্ডা দিসনে
ঘরে গিয়ে প্রার্থণা কর,
স্রষ্টা’র কাছে ক্ষমা চেয়ে
সবার জন্য দোয়া কর।
বাজার আনতে তো যেতে হয়,
বেশতো, তা যাও না,
ঘেঁসে ঘেঁসে দাঁড়াতে হবে,
এটা যেন হয় না।
তিন ফিট দুরে দাঁড়িয়ে
একে একে সদাই নাও,
হাতে গ্লাভস,মুখে মাক্স আছে কিনা
এটা একটু দেখে নাও।
তোমার ছোঁয়ায় আসতে পারে
ওর গায়ের সেই ভাইরাস,
এটা আবার আনতে পারে
তোমার ঘরে মহা সর্বনাস।
আবেগেতে গা ভাসিয়ে
কেন ডাকিস বিপর্যয়,
এমন কিছু করিস নারে
যাতে সবার ক্ষতি হয়।
ঘরে থাকলেই ছড়াবেনা
জীবন ঘাতি ভাইরাস,
সচেতনতাই রুখতে পারে
মৃত্যু দূতের এই উল্লাশ।
নিজে বাঁচো,দেশকে বাঁচাও
ঘর বাঁচাতে ঘরে যাও,
তুমি দেশের লক্ষি ছেলে
এবার তার প্রমাণ দাও।
(বঙ্গটিভি, প্রোগ্রাম প্রডিউসার, ম. ফারুক’র ফেইসবুক ওয়াল থেকে নেয়া)