ক্রীড়াখাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদপাহাড়ের সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

খাগড়াছড়ি সরকারি হাইস্কুল মাঠ এখন খেলার উপযোগী

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: খাগড়াছড়ি জেলার প্রানকেন্দ্রে অবস্থিত,(খাগড়াছড়ি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ নামে সুপরিচিত) মাঠটি দীর্ঘদিন পর সবুজে সমারোহে প্রানফিরে পাচ্ছে, তাই আজ মাঠে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ খেলা দিয়ে শুভ উদ্বোধন করে সকলের জন্য খুলে দেওয়া হলো স্কুল মাঠ।

০১ডিসেম্বুবার ধবার নতুন রুপে ফিরে আসা খাগড়াছড়ি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বিকাল ৩.৩০মিনিট প্রীতি ফুটবল ম্যাচ খেলা দিয়ে, মাঠের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে।

উক্ত শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,খাগড়াছড়ির সুযোগ্য জেলা প্রশাসক বাবু প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, যাঁর প্রচেষ্টায় খাগড়াছড়ি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের এই মাঠ আজকে সবুজ রঙে প্রাণ ফিরে পেয়েছে তিনি (খাগড়াছড়ির সড়ক বিভাগের সিনিয়র সহকারী প্রকৌশলী) মানবিক মানুষ বাবু সবুজ চাকমা সহ খাগড়াছড়ির জেলার খেলাপ্রেমী ও ছোট বড় বিভিন্ন বয়সের খেলোয়াড়েরা উপস্থিত ছিলেন।

খাগড়াজড়ি স্থানীয়দের সহ তৃণমুল পর্যায়ের লোকজনের মতামতে জানা যায়, এ মাঠটি দীর্ঘদিন যাবত প্রায় অবস্থা অত্যন্ত খারাপ ও লাজুক সহ খেলার অযোগ্য ছিল। খেলোয়াড় ও ছোট বাচ্চাদের আনান্দ বিনোদনে আবারও মাঠে ফিরবেন, খেলোয়াড় ও খেলাপ্রেমী বিভিন্ন স্কুল কলেজের ছাত্র ছাত্রীরা সহ দর্শকরা আবারো মাঠমাতাবে আনন্দ উল্লাসে এ কামনায় করছ । আবারো বিভিন্ন খেলাধুলা শুরু হবে এমাঠে এটাই প্রত্যাশা করছেন বলেও জানান এলাকাবাসী।

প্রসঙ্গত নব্বই’র দশক থেকে, সদা কমর্ব্যস্ত,কর্ম চঞ্চল খাগড়াছড়ি হাই স্কুল মাঠ মূলতঃ রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে এ মাঠটি বা মাঠের পরিবেশ ক্ষতিগ্রস্ত ছিল‌। আমি সেই দায়িত্বশীলতা থেকে শুধু নিজের কর্তব্য পালন করছি মাত্র।

খাগড়াছড়ি সড়ক বিভাগের সিনিয়র সহকারী প্রকৌশলী বাবু সবুজ চাকমা বলেন, আমি বিগত দিনগুলিতে দেখেছি, বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের শিক্ষার প্রতি গুরুত্ব সহ মনোবল বাড়াতেই আমার ছোট এ পদক্ষেপ নেওয়া এবং বিভিন্ন ইন্টারনেট গেমিং, ইউটিউব থেকে মনোযোগ ফিরিয়ে শিক্ষার্থীদের শিক্ষামূখী ও ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গিতে আনতে এই উদ্যোগ নিয়েছেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, বতর্মান তাঁর মাঝে এই খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার স্থানীয় খেলোয়াড়দের পেশাদারিত্বের সাথে তাদের মনোভাব শক্তিশালী করতে, ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে তিনি এ সকল উন্নয়ন কাজ করেন বলেও জানান।