গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি ও সম্পত্তি ক্রোকের আদেশের প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ

গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি ও সম্পত্তি ক্রোকের আদেশের প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: খাগড়াছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে জাতীয়তাবাদী যুব দল, ছাত্র দল ও স্বেচ্ছাসেবক দল। ৭ জানুয়ারি শনিবার বেলা ১১ ঘটিকার সময় জেলা বিএনপি

মাটিরাঙ্গায় ইয়াবাসহ ভারতীয় নাগরিক আটক
দুল্যাতলী ইউনিয়ন’র ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা
পানছড়ি যুবলীগের নেতার উপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ
খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: খাগড়াছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে জাতীয়তাবাদী যুব দল, ছাত্র দল ও স্বেচ্ছাসেবক দল। ৭ জানুয়ারি শনিবার বেলা ১১ ঘটিকার সময় জেলা বিএনপির কার্যালয় হতে বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে ভাঙ্গা ব্রিজ এলাকায় সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়।
দুদকের করা মামলায় আদালত কর্তৃক বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এবং তার স্ত্রী ডাঃ জোবাইদা রহমান কে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি ও তাদের সম্পত্তি ক্রোকের আদেশের প্রতিবাদে কেন্দ্র ঘোষিত বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি পালন করে খাগড়াছড়ি জেলা যুবদল, ছাত্রদল ও স্বেচ্ছাসেবক দল।
বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা বলেন, দেশে কোনো গণতন্ত্র নেই, একনায়কতন্ত্র চলছে। দলীয় করণের মাধ্যমে বৈষম্য সৃষ্টি করা হয়েছে। বর্তমান সরকার গণতন্ত্র ও মানুষের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। মানুষের স্বাভাবিক মৃত্যুর গ্যারান্টি পর্যন্ত আজ নেই। আজ্ঞাবহ আদালতের ফরমাইশি রায়ে বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এবং তার স্ত্রী ডাঃ জোবাইদা রহমান কে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি ও তাদের সম্পত্তি ক্রোকের আদেশে প্রদান করা হয়েছে, অবিলম্বে ফরমাইশি এ রায় বাতিল করার দাবী করেন।
সমাবেশে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম এন আফসার বলেন, ‘সরকার জিয়া পরিবারকে ভয় পায় বলে একের পর এক ষড়যন্ত্র করছে। সরকারের নির্দেশনায় তাদের আজ্ঞাবহ আদালত তারুণ্যের অহংকার তারেক রহমান ও তাঁর সহধর্মীনীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলায় তাদের মালামাল ক্রোকের নির্দেশ দিয়েছেন। এর মাধ্যমে তারা জিয়া পরিবারের ইমেজ ক্ষুন্ন করার হীনপ্রচেষ্টা চালিয়েছে। কিন্তু যে জিয়া জনতার অন্তরে, যে খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের জন্য নিজের জীবনকে উৎসর্গ করেছেন, যে তারেক রহমান দেশের ভাগ্য পরিবর্তনে নিরলস পরিশ্রম করছেন তাদের ইমেজ এই অবৈধ সরকার ক্ষুন্ন করতে পারবে না। এই সরকারের আর বেশি সময় নেই, পরিবর্তন আসবেই। তখন এসব ষড়যন্ত্রমূলক মামলায় যারা ইন্ধন জুগিয়েছে, যারা সরকারের পদলেহন করে রায় দিয়েছে জনতার আদালতে তাদেরই বিচার হবে।’
 জেলা যুব দলের সভাপতি মাহবুবুল আলম সবুজ বলেন, ‘এসব হামলা-মামালা বিএনপি নেতা-কর্মীরা পরোয়া করে না। দেশের জনগণও জানে মামলা দিয়ে জিয়া পরিবারকে রাজনীতি থেকে দূরে সরিয়ে রাখার দীর্ঘ ষড়যন্ত্র করছে অবৈধ সরকার। তাই যে জনতা জিয়া পরিবারকে ভালোবাসে সেখানে কোনো ষড়যন্ত্র কাজে আসবে না।’
বিক্ষোভ মিছিলে আরো উপস্থিত ছিলেন, সহ-সভাপতি ক্ষেত্র মোহন রোয়াজা,জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডঃ আব্দুল মালেক মিন্টু,যুগ্ম সম্পাদক অনিমেষ চাকমা রিংকু, সাংগঠনিক সম্পাদক আঃ রব রাজা,জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আবু তালেব, সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবুল হাসেম ভূইয়া, সদর পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহীম খলিল, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি শাহেদ হোসেন সুমন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক সাগর নোমান, উপজাতীয় বিষয়ক সম্পাদক, কেন্দ্রীয় কৃষক দল ও জেলা কৃষক দলের সভাপতি পারদর্শী বড়ুয়া, জেলা মহিলা দলের সভানেত্রী কুহেলী দেওয়ান, জেলা শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক রোকন উদ্দিন চৌধুরী, জেলা তাঁতী দলের সভাপতি আলমগীর মিয়া, জেলা জিয়া পরিষদের সভাপতি মোজ্জাম্মেল হক, জেলা মৎস্যজীবি দলের সদস্য সচিব মোঃ রিয়াসাদ সহ প্রমুখ।

COMMENTS