খাগড়াছড়িতে বিএনপি প্রার্থীর প্রচারণায় হামলা: আহত ৬, মাইক ভাঙচুর

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: ২৯৮ খাগড়াছড়ি আসনে জেলা সদরে বিভিন্ন ওয়ার্ডে ধানের শীষ প্রতীকের প্রচারণার সময় বিএনপির নেতাকর্মীদের উপর হামলা ও মারধরের ঘটনা ঘটেছে।

পাহাড়ে ‘সূর্যডিম’ বিশ্বের দামি আম
খাগড়াছড়িতে বৌদ্ধ ভিক্ষু হত্যাকারী সন্দেহে আটক রূপায়ন চাকমা জেলে
খাগড়াছড়িতে ৪২টি সেতু উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: ২৯৮ খাগড়াছড়ি আসনে জেলা সদরে বিভিন্ন ওয়ার্ডে ধানের শীষ প্রতীকের প্রচারণার সময় বিএনপির নেতাকর্মীদের উপর হামলা ও মারধরের ঘটনা ঘটেছে। এসময় প্রচারণায় ব্যবহৃত মাইক ও গাড়ি ভাঙচুর করেছে সন্ত্রাসীরা।

বৃহস্পতিবার খাগড়াছড়ি সদর শালবন হরিনাথ পাড়া গ্যাপ এলাকায় ধানের শীষ প্রতীকের প্রচারনা ও গণ-সংযোগের সময় এ ঘটনা ঘটে। জলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক মোঃ আবু তালেব স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে নেক্কারজনক হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেছে জেলা বিএনপি।

বিবৃতিতে বলা হয়, দুপুর আড়াই টার দিকে বিএনপির নেতৃবৃন্দ গণ-সংযোগ করার সময় ব্লাক জুয়েল, মোঃ আরিফ, মেঃ সুমন সহ ১৫/২০ জন আ’লীগ নেতাকর্মীরা প্রচারণার গাড়িতে অতর্কিত হামলা করে। হামলায় বিএনপির ৭জন নেতাকর্মীকে গুরুতর আহত করে এবং মাইক ও গাড়ি ভাঙচুর করে। আহত নেতাকর্মীদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য সদর হাসপাতালে নিয়ে যায় অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। আহতরা হলেন, জেলা ছাত্রদলের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক সৌভাগ্য ত্রিপুরা ডানো, প্রচার সম্পাদক মো. শফিকুল ইসলাম, পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সম্পাদক মো. সোহাগ, সহ প্রচার সম্পাদক রিদয় ও সদস্য মো. জালাল।

অপরদিকে একই দিনে সকাল সাড়ে ৯টার সময় ২নং ওয়ার্ডে আওয়ামী যুবলীগের মোঃ শাহাদত হোসেন, মোঃ রফিক, মোঃ বেলাল, মোঃ মনির, মোঃ আরিফ, ২নং ওয়ার্ড যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক জাহিদুল ইসলামকে মারধর করে ও অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে সবুজবাগ এলাকা থেকে পুলিশ জাহিদুল ইসলামকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পরিবেশ অশান্ত করার জন্য আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীরা পরিকল্পিতভাবে প্রতিদিন অতর্কিত হামলা করে যাচ্ছে অভিযোগ করে জেলা বিএনপির পক্ষ থেকে তাদেরকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানিয়েছে। অন্যথায় জেলা বিএনপি কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করতে বাধ্য হবে বলে বিবৃতে জানানো হয়েছে।