খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদপাহাড়ের সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

খাগড়াছড়িতে বিশ্ব রেড ক্রস রেড ক্রিসেন্ট দিবস পালিত

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: “মানবিক হও” এই প্রতিপাদ্যে খাগড়াছড়িতে পালিত হয়েছে বিশ্ব রেড ক্রস ও রেড ক্রিসেন্ট দিবস। দিবসটি পালন উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৮ মে রোববার সকালে খাগড়াছড়ি রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ইউনিট অফিস প্রাঙ্গণে জাতীয় পতাকা উত্তলনের মধ্য দিয়ে দিবসটির সূচনা করা হয়। পরে রেড ক্রিসেন্ট প্রাঙ্গন হতে বর্ণাঢ্য র‌্যালি জেলা শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিন করে খাগড়াছড়ি অফিসার্স ক্লাবের অডিটরিয়ামে আলোচনা সভায় মিলিত হয়।

খাগড়াছড়ি রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের আয়োজনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও খাগড়াছড়ি রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু।

খাগড়াছড়ি রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের ভাইস চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট জসিম উদ্দিন মজুমদারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় খাগড়াছড়ি সিভিল সার্জন ডাঃ মোহাম্মদ ছাবের, জেলা পরিষদের মূখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ বশিরুল হক ভূঁঞা, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের সেক্রেটারি মো. শানে আলম, খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের প্রভাষক মো. জাকির হোসেন, খাগড়াছড়ি রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের আজীবন সদস্য, যুব রেডক্রিসেন্ট সদস্যসহ সংশ্লিষ্টরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন পৃথিবীকে আরও সুরক্ষিত ও শান্তিপূর্ণ স্থান হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার প্রতিশ্রুতি ও চেষ্টায় শান্তি ও মানবতার কল্যাণে কাজ করতে এগিয়ে আসা জ্বীন হেনরি ডুনান্টকে আজকের দিনে সারা বিশ্ব স্মরণ করছে। মানবিক হও এই স্লোগানে সকল মানুষকে মানবতার দ্বার উন্মোচন করে একে অন্যের পাশে এগিয়ে আসার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানানো হয়। এসময় অতিথিরা আরও বলেন মানবতার শক্তিতে বিশ্বাস করে রেড ক্রিসেন্ট রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির সৃষ্টি হয়েছে। এই প্রতিষ্ঠানটি ধর্ম- বণর্, জাতি-গোষ্ঠী নির্বিশেষে অসহায় হতদরিদ্র মানুষের পাশে দাড়িয়েছে। আন্তর্জাতিক এই প্রতিষ্ঠানের কর্মপরিধির কোন সীমানা নেই বলেন অতিথিরা।

উল্লেখ্য, ১৮২৮ সালের এদিনে রেডক্রস ও রেড ক্রিসেন্টের প্রতিষ্ঠাতা জিন হেনরি ডুনান্ট সুইজারল্যান্ডের জেনেভা শহরে জন্মগ্রহণ করেন। এ মহান ব্যক্তিকে শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করার জন্য প্রতিবছর তার জন্মদিনটিকে বিশ্ব রেডক্রস ও রেড ক্রিসেন্ট দিবস হিসেবে সারা বিশ্বে পালন করা হয়।