খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদপাহাড়ের সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

খাগড়াছড়িতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে ইউপিডিএফ কর্মী দীলিপ চাকমা নিহত

স্টাফ রিপোর্টার: খাগড়াছড়িতে দীলিপ কুমার চাকমা নামে এক ইউপিডিএফ কর্মী নিহত হয়েছেন। ১৭ ফেব্রুয়ারি শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সদর উপজেলার রাঙাপানি ছড়া এলাকায় সন্ত্রাসীরা গুলি করলে তার মত্যু হয়। দীলিপ কুমার চাকমা জেলার পানছড়ির মনিপুর গ্রামের সন্তোষ চাকমার ছেলে এবং ইউপিডিএফের রাঙাপানি ছড়া এলাকার সাংগঠনিক দায়িত্বপ্রাপ্ত ছিলেন বলে জানা গেছে।

সূত্রে জানা গেছে, ঘটনার সময় দীলিপ কুমার চাকমা অপর সঙ্গীসহ বাসার সামনে বসে ছিলেন। এ সময় কতিপয় অস্ত্রধারী তাদের ধাওয়া করে পেছন থেকে গুলি করলে দীলিপ কুমার চাকমা ঘটনাস্থলেই মারা যান। সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তারেক মোহাম্মদ আবদুল হান্নান সাংবাদিকদের জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

এঘটনায় ইউপিডিএফ’র জেলা সংগঠক মাইকেল চাকমা গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে এ হত্যাকাণ্ডের জন্য নব্য মুখোশ বাহিনী ইউপিডিএফ-কে (গণতান্ত্রিক) দায়ী করেছেন।

ইউপিডিএফ প্রচার ও প্রকাশনা বিভাগ নিরন চাকমা স্বাক্ষরিত অপর এক প্রেসবার্তা পাঠিয়ে বিবৃতিতে বলেন, আজ সকাল সাড়ে ৮টার দিকে সেনা-মদদপুষ্ট ৯ জনের একটি সন্ত্রাসী দল ইউপিডিএফ’র স্থানীয় কর্মীদের উপর হামলা চালায়। সন্ত্রাসীদের উপর্যুপুরি ব্রাশ ফায়ারে দিলীপ কুমার চাকমা ঘটনাস্থলেই নিহত হন।

নিহত দিলীপ কুমার চাকমা পানছড়ি উপজেলার চেঙ্গী ইউনিয়নের পুজগাঙের মুনিপুর (লেন্দিয়া পাড়া) গ্রামের সন্তোষ কুমার চাকমার ছেলে। বিবৃতিতে তিনি এ ঘটনাকে কাপুরুষোচিত উল্লেখ করে বলেন, রাজনৈতিক ও আদর্শিকভাবে ইউপিডিএফ-কে মোকাবিলা করতে ব্যর্থ হয়ে সন্ত্রাসী দিয়ে ইউপিডিএফ’র নেতা-কর্মীদের হত্যায় মেতে উঠেছে। বিবৃতিতে তিনি অবিলম্বে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সরকারের কাছে দাবি জানান।

গত ৩ জানুয়ারি আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে খাগড়াছড়ির পানখাইয়া পাড়ায় প্রতিপক্ষের গুলিতে ইউপিডিএফ’র সংগঠক মিঠুন চাকমা নিহত হয়।