• June 20, 2024

খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির জনসমাবেশ অনুষ্ঠিত, বিএনপির গাড়িবহরে হামলার অভিযোগ

 খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির জনসমাবেশ অনুষ্ঠিত, বিএনপির গাড়িবহরে হামলার অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার: গায়েবী ও মিথ্যা মামলা,গন গ্রেফতার, দ্রব্য মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে , দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও ১০ দফা দাবি বাস্তবায়নের লক্ষে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে ২৬ মে শুক্রবার দুপুরে খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপি এই জনসমাবেশের আয়োজন করে। জনসমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশের জাতীয়বাদী দল বিএনপি খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক এমপি ওয়াদুদ ভূইয়া। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আল নোমান। সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি জেলা উপজেলা পৌর ইউনিয়ন ওয়ার্ড বিএনপির নেতাকর্মীরা।

জনসমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি প্রবীন চন্দ্র চাকমা, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম এন আবসার, জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মো: মোশারফ হোসেন, অনিমেষ চাকমা রিংকু, আব্দুর রব রাজা, মাহবুবুল আলম সবুজ, নজরুল ইসলাম, শাহেদুল আলম সুমন প্রমুখ। বক্তারা অভিযোগ করেন সমাবেশ বানচাল করতে গত কয়েকদিন ধরে বিএনপির নেতা-কর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হামলা করে যুবলীগ-ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা। সমাবেশে আসার সময় বিভিন্নস্থানে হামলা চালিয়ে অসংখ্য নেতা-কর্মীদের আহত করে। সরকার পতনের একদফা দাবি দেয়ার আহবান জানান বক্তারা।

বিএনপির গাড়ি বহরে হামলা-পাল্টা অভিযোগ আওয়ামী লীগের

খাগড়াছড়িতে সমাবেশে যোগ দিতে যাওয়ার পথে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমানের গাড়িবহরে হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ২৬ মে শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে খাগড়াছড়ি কলেজ সড়কে আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ের সামনে এ হামলার ঘটনা ঘটে। ঘটনার জন্য স্থানীয় আওয়ামী লীগকে দায়ী করছে বিএনপি। তবে আওয়ামী লীগ এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলছে, বিএনপির লোকজন আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে প্রথমে হামলা করে।

গাড়ি বহরে থাকা চট্টগ্রাম মহানগর যুবদলের সহ-সভাপতি আবদুল গফুর বলেন, আওয়ামী লীগের কার্যালয়র সামনে তাঁদের গাড়ি বহর যাওয়ার সময় কমপক্ষে ২শ আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী হামলা চালায়। খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম এন আবসার বলেন, হামলায় আবদুল্লাহ আল নোমান রক্ষা পেলেও জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ক্ষেত্র মোহন রোয়াজা, চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম-সম্পাদক শরিফুল ইসলাম, চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য কামরুল হাসান আকাশ, মানিকছড়ি উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক স্কুল বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ সোহেল রানা, পৌর ছাত্রদল নেতা ইফতি আহম্মেদ, সদর উপজেলা বিএনপি কোষাধ্যক্ষ জাহাঙ্গীর আলম, ৩নং ওয়ার্ড সদর পৌর ছাত্রদলের সহ-সভাপতি ইফতি হাসান, মানিকছড়ি উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক প্রচার সম্পাদক সোহেল রানা মানিকছড়ি উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক স্কুল বিষয়ক সম্পাদক মোঃ সোহেল রানা, পৌর ছাত্রদল নেতা ইফতি আহম্মেদ কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাবেক সদস্য শেখ রাসেল, কেন্দ্রীয় সেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সহ-সাংগঠনিক আরিফ মেহেদীসহ অসংখ্য নেতা-কর্মী আহত হন।

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও খাগড়াছড়ি পৌর মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী বলেন, বিএনপি-জামায়াতের দেশব্যাপী সন্ত্রাস-নৈরাজ্যের প্রতিবাদে পূর্বনির্ধারিত শান্তি সমাবেশে যোগ দিতে আসা নেতা-কর্মীরা দলীয় কার্যালয়ে বিশ্রাম নিচ্ছিলেন। এ সময় বিএনপির গাড়িবহর থেকে কার্যালয়ের দিকে ইটপাটকেল ছোড়া হয়। পরে পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের চারজন আহত হয়েছেন।

খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ সুপার নাইমুল হক বলেন, ‘বিএনপির গাড়িবহরে হামলার বিষয়ে আমরা কিছু জানি না। কেউ অভিযোগ করেনি। বিএনপির সমাবেশ শান্তিপূর্ণভাবে চলছে। যথেষ্ট পুলিশ পাহারা রয়েছে। হামলার বিষয়ে কেউ অভিযোগ দিলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পাহাড়ের আলো

https://pahareralo.com

সর্বাধিক জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল। সর্বশেষ সংবাদ সবার আগে জানতে চোখ রাখুন পাহাড়ের আলোতে।

Related post