খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদদীঘিনালাপাহাড়ের সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

দীঘিনালায় জাহাঙ্গীরকে হত্যা করে তারই প্রতিবেশী: পুলিশ সুপার

হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে পারভেজ
খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: জমির দখল নিতে খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় চা-দোকানি জাহাঙ্গীর আলমকে হত্যা করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ। ঘটনার জের ধরে মো. পারভেজ আলম (৩২) নামে এক প্রতিবেশীকে গ্রেপ্তারের পর খাগড়াছড়ির পুলিশ সুপার আব্দুল আজিজ এ তথ্য জানান।
গত বৃহস্পতিবার রাতে খাগড়াছড়ির দীঘিনালার চা-দোকানি জাহাঙ্গীর আলম খুন হন। শুক্রবার সকালে তার মাথাবিহীন লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত পারভেজ নিহত জাহাঙ্গীরের প্রতিবেশী। তারা দীঘিনালা উপজেলার মেরুং ইউনিয়নের হাজাছড়া দক্ষিণপাড়ার বাসিন্দা।
পুলিশ সুপার সাংবাদিকদের বলেন, লাশ উদ্ধারের পর ওই দিন রাতেই পারভেজকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তার স্বীকোরক্তি অনুযায়ী বাড়ির পাশের গোবরের স্তূপ থেকে মাথা উদ্ধার করে পুলিশ। “জাহাঙ্গীরের দুই শতক জমি দখল করার জন্য তাকে হত্যার পরিকল্পনা করেন পারভেজ।”
পারভেজকে জিজ্ঞাসাবাদের তথ্য দিয়ে পুলিশ সুপার বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলেন জাহাঙ্গীর। পথে তাকে হত্যা করে শরীর থেকে মাথা আলাদা করেন পারভেজ। পরে পারভেজ মাথাটা নিয়ে বাড়ির পাশে গোবরের স্তূপে পুঁতে রাখেন।
“হত্যার দায় স্বীকার করে পারভেজ আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন।” হত্যাকাণ্ডে আরও কেউ জড়িত আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান পুলিশ সুপার।