দীঘিনালায় বজ্রপাতে ঘরে আগুন, মা-ছেলে পুড়ে অঙ্গার

 দীঘিনালায় বজ্রপাতে ঘরে আগুন, মা-ছেলে পুড়ে অঙ্গার

দীঘিনালা (খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি: বজ্রপাতে বসতঘরে আগুন লেগে সবই পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। সেই সঙ্গে পুড়ে অঙ্গার হয়েছেন বাড়িতে ঘুমিয়ে থাকা মা ও ছেলে।

রোববার ভোর পাঁচটায় মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনা ঘটেছে খাগড়াছড়ির দীঘিনালার মেরুং ইউনিয়নের মধ্য বেতছড়ির গোরস্থান পাড়ায়। নিহত দুজন হলেন বাসচালক এর সহকারী ছাদেক মিয়ার স্ত্রী হাসিনা বেগম (৩০) ও তাঁর ছোট ছেলে হানিফ মিয়া (৮)। কর্মরত থাকায় ছাদেক মিয়া তখন ঘরে ছিলেন না। আর বড় ছেলে মো. হাফিজুর রহমান (১১) এই ঘটনার সময় প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘরের বাইরে বের হয়। এ কারণে সেও বেঁচে যায় দুর্ঘটনা থেকে।

মেরুং ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদা বেগম লাকি স্থানীয়দের বরাতে জানান, ভোররাতে বজ্রপাতে নিহতদের ঘরে আগুন লেগে যায়। ঘরটিও সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে। নিহত দুইজনই পুড়ে অঙ্গার হয়ে গেছে।

এদিকে, মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনায় রোরবার দুপুরে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষথেকে নগত ২০ হাজার টাকা ও খাদ্যসামগ্রী ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের কাছে প্রদান করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: মামুনুর রশীদ।
তিনি জানান, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারটিকে অতিদ্রুত সময়ের মধ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয় প্রকল্পের ঘর করে দেওয়া হবে।

দীঘিনালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নুরুল হক বলেন, নিহত ব্যক্তিদের লাশ এমনভাবে পুড়েছে, যা চেনারও কোনো উপায় নেই। আইনি প্রক্রিয়া শেষে লাশ পরিবারের কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হবে।

পাহাড়ের আলো

https://pahareralo.com

সর্বাধিক জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল। সর্বশেষ সংবাদ সবার আগে জানতে চোখ রাখুন পাহাড়ের আলোতে।

Related post