খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদদীঘিনালাপাহাড়ের সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

দীঘিনালায় ব্যবসায়ীর মস্তক বিহীন লাশ উদ্ধার

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: খাগড়াছড়ি জোলার দীঘিনালায় মস্তক বিহীন অবস্থায় এক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতের নাম জাহাঙ্গীর আলম (৫০)। তিনি মৃত সফি উল্লাহর ছেলে। তার বাড়ি দীঘিনালা উপজেলার পূর্ব হাজাছড়া গ্রামে বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ১০ জুন শুক্রবার সকালে হাজাছড়া যাওয়ার পথে ডোবার পাড়ে নিহতের লাশ পড়ে থাকতে দেখেন এলাকাবাসী। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নিহতের মস্তক বিহীন লাশ উদ্ধার করেন। এসময় আলু ডাল, বিস্কুট ইত্যাদি বাজার সদাই হাতে ছিলো। ঘটনার পর থেকে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও জাহাঙ্গীর আলমের মাথা উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।স্থানীয়রা অনেকেই জানান, বাজার থেকে ফেরার পথে বৃহস্প্রতিবার মধ্যরাতে এঘটনা ঘটতে পারে।

ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন খাগড়াছড়ি সদর সার্কেল জিনিয়া চাকমা এবং দীঘিনালা থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম পেয়ার আহমেদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। নিহতের মাথা উদ্ধার করার জন্যে পুকুরে জাল টানা হয়েছে। কিন্ত মাথা খুজে পাওয়া যায়নি।

নিহতের স্ত্রী খাদিজা বিবি (৩৫) জানান, তার স্বামী উদ্দীনের দোকানে কারিগর হিসেবে চাকরি করতো। সেখানে বেতন বাড়ানো নিয়ে দু’জনের সাথে ঝগড়া হয়। পরে সেখান থেকে চাকরি ছেড়ে দিয়ে ৯ মাস আগে নতুন করে নিজেই দোকান দেয়।

নিহতের শ্বশুর জাহাঙ্গীর আলম জানান, আমার মেয়ে জামাই জাহাঙ্গীর আলম খুবই সহজ সরল মানুষ। কেনই বা তাকে নির্মমভাবে খুন করা হলো জানিনা।

জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী ছাড়াও সাদিয়া আক্তার (১১) ফাহিমা আক্তার (৬) এবং মহিমা আক্তার (১) তিন কন্যা সন্তান রয়েছে।

মেরুং পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ নজরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিহতের মাথা এখনো উদ্ধারে চেষ্টা চলছে।