দীঘিনালায় নির্বাচনী প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থীরা, নৌকা-ধানের শীষের প্রচারণা

মোঃ আল আমিন, দীঘিনালা: খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় নির্বাচনীয় প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন আওয়ামীলীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টির প্রার্থী নেতাকর্মী, এবং সমর্থ

বিএমএসসির ১৭তম কেন্দ্রীয় কাউন্সিল: সভাপতি নিয়ং মারমা, সম্পাদক উখিঅং মারমা
রামগড়ে করোনা প্রতিরোধ সেনাবাহিনীর কার্যক্রম অব্যাহত
জেলায় শ্রেষ্ঠ ইউএনও নির্বাচিত খোন্দকার মো: ইখতিয়ার উদ্দিন আরাফাত

মোঃ আল আমিন, দীঘিনালা: খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় নির্বাচনীয় প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন আওয়ামীলীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টির প্রার্থী নেতাকর্মী, এবং সমর্থকরা। শুক্রবার সকালে উপজেলার পাবলাখালী শান্তিপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সাথে মতবিনিময় সভা করেছেন আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা।

অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সুসময় চাকমার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্স চেয়ারম্যান এবং আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রণ বিক্রম ত্রিপুরা, দীঘিনালা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নব কমল চাকমা, জেলা পরিষদ সদস্য এ্যাডভোকেট আশুতোষ চাকমা, শতরুপা চাকমা, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ক্রসাইয়ো মারমা, দীঘিনালা সরকারি ডিগ্রি কলেজের উপাধ্যক্ষ তরুণ কান্তি চাকমা, দীঘিনালা উপজেলা কার্বারী এসোসিয়েশনের সভাপতি হেমাব্রত চাকমা, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিদ্যুৎ বরণ চাকমা, ভারত প্রত্যাগত শরনার্থী কল্যাণ সমিতির নেতা আনন্দ মোহন চাকমা, বাবুছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সন্তোষ জীবন চাকমা, দীঘিনালা ইউপি চেয়ারম্যান প্রজ্ঞান জ্যোতি চাকমা প্রমুখ।

মতবিনিময় সভায় বক্তারা বলেন, ‘‘জাতি টিকে থাকার জন্য প্রধান বাহন তার ভাষা। সেই ভাষাকে স্বীকৃতি দিয়েছে বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার। আজ চাকমা ভাষাসহ ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠির সকল ভাষায় সরকারের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণির পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। অস্তিত্ব বিলীন হতে চাকমা ভাষাকে তুলে এনে ভাষার মর্যাদা দিয়েছেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী। অতীতের কোন সরকারই জুম্ম জনগণের কল্যাণের জন্য কাজ করে নাই। শুধু বর্তমান সরকারই চাকমা জাতি তথা ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠির উন্নয়নের জন্য কাজ করেছেন তাই নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনতে হবে।

অন্যদিকে, দুপুরের পর পর বিএনপির মনোনীত প্রার্থী মোঃ শহিদুল ইসলাম ভূঁইয়া ফরহাদ পরিবর্তনের বার্তা ও ধানের র্শীষ প্রতীক নিয়ে গ্রাম থেকে গ্রামে চষে বেড়াচ্ছেন ফরহাদ। ধানের র্শীষে ভোট দেওয়ার আহবান নিয়ে দীঘিনালা উপজেলার সবচেয়ে বড় বাজার বোয়াখালী নতুন বাজার এলাকার গণসংযোগ শেষ করে থানা বাজার, কবাখালী ইউনিয়নের কবাখালী বাজার হাসিনসনপুর এলাকা, মেরুং এলাকা এবং বিভিন্ন গ্রামে গণসংযোগ করেছেন।  এ সময় খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির যুগ্ন সম্পাদক এ্যাড মালেক মিন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক এম এন আবছার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক মোশাররফ হোসেন, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহীম খলিল, ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাহেদুল আলম,

দীঘিনালা উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান মোসলেম উদ্দিন, সাধারন সম্পাদক ডাক্তার শফিকুল ইসলাম (সফি), যুগ্ম সম্পাদক আব্দুর রহিম, সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল আফসার (মোনাফ), যুবদলের সভাপতি মোমিনুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মো. মোতালেব, উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি মো. সোহরাব, সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনু, কলেজ ছাত্রদলের সভাপতি আরিফুল ইসলাম মঞ্জু সহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

এদিকে, গতকাল জাতীয় পার্টির খাগড়াছড়ি আসনের প্রার্থী সোলেমান আলম শেঠ নাঙল প্রতীক নিয়ে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার গণসংযোগ করেছেন বলে জানা যায়।