খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদদীঘিনালাপাহাড়ের সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

দীঘিনালায় পুনাতি হত্যাকন্ডকে ধর্ষণ, হত্যা ও আধিপত্যকে মূল ধরে তদন্ত করছে পুলিশ

স্টাফ রিপোর্টার: দীঘিনালার ত্রিপুরা পল্লীতে পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী পুনাতিকে ধর্ষণের পর নৃশংসভাবে হত্যার ৫দিন অতিবাহিত হলেও রহস্য উন্মোচন হয়নি। ওই ছাত্রীর মা অনুমতি ত্রিপুরা অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে হত্যা মামলা করার পর সন্দেহভাজন ৩ যুবককে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। খাগড়াছড়ির জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোর্শেদ আলমের আদালত ওই রিমান্ড মঞ্জুর করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও দীঘিনালা থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুস সামাদ  সাংবাদিকদের কাছে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ধর্ষণের পর নৃশংসভাবে গলা, হাত ও শরীরের বিভিন্ন অংশে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। হত্যাকাণ্ডের পাঁচ দিন অতিবাহিত হলেও রহস্য উন্মোচন করতে না পারায় ক্ষোভ ও প্রতিবাদ অব্যাহত রয়েছে। তবে পুলিশ বলছে সন্দেহভাজনদের জিজ্ঞাসাবাদ ও ঘটনাস্থল থেকে আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। একাধিক বিষয় সামনে রেখে গুরুত্ব সহকারে তদন্ত কার্যক্রম চলছে বলে পুলিশের দাবি।

পুলিশ ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একাধিক সূত্র বলছে, ধর্ষণের পর হত্যাকাণ্ড বিষয়টি মোটামুটি নিশ্চিত হওয়া গেলেও আরো কিছু বিষয়ে তদন্ত কার্যক্রম চলছে। ৯মাইল এলাকায় পাহাড়ের আঞ্চলিক বেশ কিছু সংগঠন নিজেদের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারের দ্বন্দ্বে লিপ্ত ছিল বেশ কয়েক মাস ধরে। আধিপত্য বিস্তারে প্রতিপক্ষকে দুর্বল করতে এমন ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটাতে পারে বলেও সন্দেহ করা হচ্ছে। কারণ পাহাড়ের আঞ্চলিক সংগঠনগুলো নিজেদের আধিপত্য ধরে রাখতে প্রায়ই হত্যাকাণ্ড, গুম, অপহরণ ও সাম্প্রদায়িক উসকানি দেয়ার চেষ্টা চালায়। যার প্রমাণ মিলে খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলায় বড়পিলাকে তুচ্ছ ঘটনায় সাম্প্রদায়িক সঙ্ঘাত লাগাতে উসকানি দিয়েছিল। পুনাতি হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে এমন কোনো ঘটনা আছে কি না সেটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এ দিকে পুনাতি হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত সন্দেহে আটককৃতদের বিষয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। নয়মাইল এলাকার বাসিন্দারা বলছে ঘটনার দিন দুপুরের পর থেকে আটককৃত শাহ আলম, নজরুল ইসলাম ও মনির হোসেন ওই এলাকায় অবস্থান করছিল। প্রায় সময় তারা এসব এলাকায় অবস্থান করত এবং ঘুরেফিরে চলে যেত। তাই তাদের প্রতি এলাকাবাসী ও নিহতের স্বজনদের সন্দেহের তীর।

খাগড়াছড়ির পুলিশ সুপার আলী আহমদ খান বলেন, ধর্ষণের পর হত্যাকাণ্ড সেটি অনেকাংশে নিশ্চিত। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ দিকে পুনাতি হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার জেলার প্রত্যেক প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পূর্ব ঘোষিত শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের কালো ব্যাজ ধারণ কর্মসূচি সারা দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় স্থগিত করা হয়।

হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে পানছড়ির পূজগাং বাজারে বিক্ষোভ করেছে ইউপিডিএফ সমর্থিত পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন। বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে পুনাতি ত্রিপুরার ধর্ষক ও হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিসহ পাহাড় ও সমতলের প্রতিটি ধর্ষণের সুষ্ঠু বিচার দাবি করা হয়।
উল্লেখ্য গত ২৮ জুলাই খাগড়াছড়ির দীঘিনালা ত্রিপুরা পল্লীতে পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী পুনাতি ত্রিপুরাকে ধর্ষণের পর নৃশংসভাবে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।