নানা অভিযোগ খাগড়াছড়ি কেন্দ্রীয় মসজিদ পরিচালনার দায়িত্বে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক

নানা অভিযোগ খাগড়াছড়ি কেন্দ্রীয় মসজিদ পরিচালনার দায়িত্বে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: খাগড়াছড়ি কেন্দ্রীয় শাহী জামে মসজিদের বর্তমান মেয়াদোত্তীর্ণ পরিচালনা কমিটির কার্যক্রম অবৈধ ঘোষনা করে পরবর্তী নির্বাচন ও পরিচালনা কম

আগামী ১০ জানুয়ারি লক্ষ্মীছড়ি জোন কমান্ডার’স কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট’র উদ্বোধন
ধর্ষকের শাস্তির দাবিতে খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন
পানছড়িতে যৌথ অভিযানে অস্ত্রসহ ইউপিডিএফ সদস্য আটক

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: খাগড়াছড়ি কেন্দ্রীয় শাহী জামে মসজিদের বর্তমান মেয়াদোত্তীর্ণ পরিচালনা কমিটির কার্যক্রম অবৈধ ঘোষনা করে পরবর্তী নির্বাচন ও পরিচালনা কমিটি না হওয়া পর্যন্ত মসজিদের পরিচালনার দায়িত্ব অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক)-কে দেয়া হয়েছে। গত ৩১/১০/২০২২খ্রি. তারিখে খাগড়াছড়ির যুগ্ম জেলা জজ মাহমুদুল ইসলাম এ আদেশ জারি করেন। রাষ্ট্রপক্ষের কৌশলী (জিপি) অ্যাডভোকেট মোঃ গিয়াস উদ্দিন এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

বাদীপক্ষের কৌশলী অ্যাডভোকেট মহি উদ্দিন কবির জানান গত ৩১/১০/২০১৭খ্রি. তারিখে তিন বছরের জন্য মোঃ জাহেদুল আলম-কে সভাপতি ও মোঃ সোলায়মান-কে সম্পাদক করে ২১ সদস্য বিশিষ্ট কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়েছিলো। উক্ত কমিটির মেয়াদ গত ৩০/১০/২০২০খ্রি. তারিখে শেষ হলেও মসজিদের গঠনতন্ত্র মোতাবেক নতুন কমিটি নির্বাচন না করেই এ কমিটি মসজিদের গঠনতন্ত্র অথবা সরকারের মসজিদ পরিচালনা নীতিমালা লংঘন করে অবৈধভাবে আরো দুই বছরের বেশি সময় পার করে। পাশাপাশি দীর্ঘ পাঁচ বছরের বেশি সময়ে এ কমিটির সভাপতি ও সম্পাদক খাগড়াছড়ি কেন্দ্রীয় শাহী জামে মসজিদের নানা উন্নয়ন কর্মকান্ড, মসজিদের সম্পত্তি রক্ষণাবেক্ষণসহ বিভিন্ন আর্থিক কর্মকান্ডে প্রচুর অনিয়ম করে। ফলে মসজিদের সাধারণ মুসল্লীদের মনে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

মুসুল্লীদের ক্ষোভ বুঝতে পেরে মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির সভাপতি জাহেদুল আলম আবারো সভাপতি হবার জন্যে তার আপন ভাই মোঃ রফিকুল আলম-কে নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব দিয়ে নির্বাচনের নামে প্রহসনের অপচেষ্টা করে।

নির্বাচন প্রক্রিয়ায় সিডিউল ঘোষণাসহ গোপন ব্যালটে ভোট প্রদান কার্যক্রম থাকলেও রফিকুল আলম গং প্রতিদ্বন্দী প্রার্থীদের প্রতিদ্বন্দিতার সুযোগ না দিয়ে গত ০৪/১২/২০২১খ্রি. তারিখে প্রস্তাব ও সমর্থনের ভিত্তিতে প্রার্থী নির্বাচনের চেষ্টা করলে সাধারণ মুসল্লীদের পক্ষে গোলাম মোহাম্মদ চৌধুরী বাদী হয়ে গত ০১/১২/২০২১খ্রি. তারিখে যুগ্ম জেলা জজ আদালতে মামলা করেন। যা দেওয়ানী মামলা নং ২১৯/২০২১। মামলায় বাদীপক্ষ মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বাতিল ও গঠনতন্ত্র মোতাবেক আহ্বায়ক কমিটি গঠনের আদেশের প্রার্থনা করেন।

বিবাদীপক্ষের আইনজীবী আকতার উদ্দিন মামুন জানান মোঃ জাহেদুল আলম, রফিকুল আলমসহ বিবাদীগণ গত ১৫/১২/২০২১খ্রি. আদালতে হাজির হয়ে জবাব দিয়ে জানিয়েছে তারা বিগত ২১/১২/২০২০ ইং তারিখে সহ-সভাপতি জাফর আহম্মদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কার্যনির্বাহীর কমিটির সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক নিজেদের কমিটির মেয়াদ আরো এক বছর বৃদ্ধি করেন এবং বৈধভাবেই মসজিদ পরিচালনা করেছেন।

বাদীপক্ষের দাবী যে রেজুলেশনমূলে মসজিদ কমিটির মেয়াদ ১ বছর বৃদ্ধি করা হয়েছে তা জাল জালিয়াতি করে আদালতে জমা দেয়া হয়েছে এবং এতে মৃত মানুষের স্বাক্ষর আছে। উক্ত কার্যবিবরণীতে ১২ নং স্বাক্ষরকারী সাধারণ সম্পাদক মোঃ সোলায়মান মারা যান গত ০৬/১১/২০২০খ্রি. তারিখে। কিন্তু এ কার্যবিবরণীতে উক্ত মৃত ব্যক্তি স্বাক্ষর দেখানো হয়েছে ২১/১২/২০২০ইং তারিখে। তাছাড়া উক্ত সভার সভাপতি মোঃ জাফর আহম্মদের স্বাক্ষর ও জালিয়াতি করে আদালতে জমা দেয়া হয়েছে উল্লেখ করা হয়।

বিবাদীদের ১ বছর মেয়াদবৃদ্ধি অগঠনতান্ত্রিক ও মসজিদ ব্যবস্থাপনা নীতিমালা বিরোধী কার্যক্রম উল্লেখ করলে যুগ্ম জেলা জজ মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বাতিল করে খাগড়াছড়ি কেন্দ্রীয় শাহী জামে মসজিদের নির্বাচন ও পরবর্তী পরিচালনা কমিটি দায়িত্বভার গ্রহন পর্যন্ত মসজিদ পরিচালনার জন্য অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক)-কে আদেশ দেন। বিবাদীপক্ষের আইনজীবী আকতার উদ্দিন মামুন বলেন তারা আদালতের রায়ে সংক্ষুদ্ধ হয়েছেন। এই আদেশের বিরূদ্ধে তারা আপীল করবেন।