খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদপাহাড়ের সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

নেটওয়ার্ক ত্রুটির কারণে উৎসব ভাতা পাচ্ছে না খাগড়াছড়িতে সরকারি চাকুরিজীবিরা

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধ: ইএফটি (ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার) হওয়ার পর থেকে খাগড়াছড়ি জেলার পেনশনাররা নানা ধরণের অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছেন। তাদের মধ্যে অনেকেই এবছর বৈসাবি উৎসব উপলক্ষে উৎসব ভাতা থেকে বঞ্চিত হন। এছাড়া কেউ কেউ পাননি নববর্ষ ভাতাও। এর বাইরে লাইভ ভেরিফিকেশন এর কারণ দেখিয়ে বহু পেনশনার নিয়মিত পেনশন সুবিধাও পাচ্ছেন না।

জানা গেছে, ইএফটি হওয়া জেলার ৯‘শ পেনশানারের মধ্যে এখনো প্রায় আড়াই শ বয়স্ক নারী-পুরুষ চরম কষ্টের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। তারা কয়েক মাস ধরে পেনশান সুবিধা পাচ্ছেন না। অফিসিয়াল বিভ্রান্তির মধ্যে বয়স্ক মহিলা ও পুরুষরা দূর্ভোগ পোহাচ্ছেন। যাদের লাইভ ভেরিফিকেশন শেষ হয়েছে তাদের মধ্যেও অনেকের মাসিক পেনশান অনিয়মিত হয়ে গেছে।

এদিকে পার্বত্য অঞ্চলের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠিভূক্ত পেনশনারদের বৈসাবি উপলক্ষে উৎসব ভাতা এবার দেয়া হয়নি। অবশ্য কিছু কিছু পেনশনার তা পেয়েছেন বলেও শোনা যাচ্ছে। ইএফটি হওয়ার প্রেক্ষিতে উৎসব ভাতা প্রদানে ব্যত্যয় ঘটেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মূলত: পাহাড়িরা বৈসাবিতেই উৎসব ভাতা পেয়ে থাকেন। অথচ এবছর তা না পাওয়ায় বহু দরিদ্র পেনশনার বৈসাবি উৎসব পালন করতে পারেননি।

বাংলাদেশ অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী কল্যান সমিতির খাগড়াছড়ি শাখার সভাপতি প্রফেসর ড. সুধীন কুমার চাকমা জেলার পেনশনারদের বিদ্যমান বিভিন্ন অসুবিধা লাগবে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

সম্প্রতি পেনশনারদের উদ্ভুত সমস্যা সমাধানে পেনশন এন্ড ফান্ড ম্যানেজমেন্ট এর চীপ একাউন্টস এন্ড ফিনেন্স অফিসার বরাবরে তিনদফা দাবী সম্বলিত আবেদন পাঠিয়েছে বাংলাদেশ অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী কল্যান সমিতির খাগড়াছড়ি শাখা।
দাবীসমূহ হলো- প্রতি মার্চ মাসের সাথে আগের মত উৎসব ভাতা প্রদান, ইএফটি জটিলতায় বন্ধ রাখা পেনশান দ্রুততম সময়ের মধ্যে ছাড় দেয়া এবং লাইভ ভেরিফিকেশন তথ্য দ্রুততম সময়ের মধ্যে নিস্পত্তি করা।

এ বিষয়ে জেলা হিসাব রক্ষন কর্মকর্তা মো: মোয়াজ্জেম হোসাইন জানান, নতুন নিয়ম (ইএফটি) চালু হবার পর থেকে পেনশনারদের সুবিধাই বেশি হয়েছে। তবে নিয়মটি ঢাকা হতে নিয়ন্ত্রিত হয় বলে নেটওয়ার্ক ত্রুটির কারণে মাঝে মাঝে কিছুটা সমস্যা হচ্ছে ঠিকই। অবশ্য কিছুদিন অপেক্ষা করলে তা কেটে যায়। উৎসব ভাতা প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমরা খাগড়াছড়ি থেকে সব কিছু ছাড় করে দিয়েছি। তারপরও কেন সমস্যা হচ্ছে তা বুঝতে পারছিনা।’