পানছড়ি বাজার বয়কট

স্টাফ রিপোর্টার: অস্ত্রের ভয়ে খাগড়াছড়ির পানছড়ি বাজার বয়কট করছে পাহাড়ীরা। আনুষ্ঠানিক বা লিখিতভাবে এ ঘোষণা না আসলেও ইউপিডিএফ প্রাণ নাশের হুমকি দিয়ে বাজা

পানছড়িতে কিশোর বাতায়ন, মুক্তপাঠ কর্মশালা
পানছড়িতে আ‘লীগের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল
গুইমারা উপজেলা আওয়ামীলীগের কর্মী সমাবেশ

স্টাফ রিপোর্টার: অস্ত্রের ভয়ে খাগড়াছড়ির পানছড়ি বাজার বয়কট করছে পাহাড়ীরা। আনুষ্ঠানিক বা লিখিতভাবে এ ঘোষণা না আসলেও ইউপিডিএফ প্রাণ নাশের হুমকি দিয়ে বাজার বয়কট করতে স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ও জনসাধারণদের মোবাইল ফোনে হুমকি দিয়েছে বলে জানা গেছে। যার কারণে রবিবার (২০ মে) পানছড়ি সাপ্তাহিক বাজার দিন হলেও অন্যান্য দিনের মত বাজার বসেনি। খাগড়াছড়ি-পানছড়ি সড়কে চলাচল করেনি কোন গাড়িও। পানছড়ির নার্সারী ব্যবসায়ী নিজাম উদ্দিন বলেন, ইউপিডিএফ-কে চাঁদা না দিয়ে কোন ব্যবসা করা যায় না। এটা দিন দিন বেড়েই যাচ্ছে। রাস্তায় চারা নিয়ে নামলে চাঁদা দিতে হবে। অন্যথায় অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে নির্যাতন করা হয়।

পানছড়ির টমটম চালক মনিরুল ইসলাম জানান, ইউপিডিএফ বাজার বর্জনের পাশাপাশি গাড়ী চলাচলেও বাধা দিচ্ছে। কেউ রাস্তায় গাড়ী নামলে ভাংচুর করা হচ্ছে।

পানছড়ি বাজার কমিটির সভাপতি হেদায়েত তালুকদার বলেন, আজ কিছুদিন যাবত ইউপিডিএফ’র নেতা-কর্মীরা বিক্ষিপ্তভাবে আমাদের ফোনে হুমকি দিয়ে আসছে। তারা বলছে যেকোন সময় তারা বাজারে হামলা করবে। তাদের অভিযোগ, বাজারে জেএসএস (এমএন) গ্রুপের লোকজন নাকি আশ্রয় নিয়েছে। আমি এ বিষয়টি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে জানিয়েছি।

পানছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি মো. বাহার মেম্বার বলেন, শুনেছি ইউপিডিএফ নাকি বাজার বর্জন করেছে। এটা খুবই দুঃখজনক বিষয়। ব্যাক্তি জীবন থেকে শুরু করে সামগ্রিক জীবনে বাজারের গুরুত্ব অপরিসীম। আমরা আমাদের এখানে বাজার নিয়ে কোন জামেলা দেখতে চাইনা। সমস্যা সমাধানে দ্রুত প্রশাসনের উদ্যোগ নেওয়া উচিত।

পানছড়ি থানার ভারপ্র্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান জনান, তিনি বাজার বর্জন ও চাঁদাবাজির কথা শুনেছেন। তবে লিখিতভাবে কেউ জানাননি। কেউ অভিযোগ করলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।