পাহাড়ে সাম্প্রদায়িক উস্কানী দিচ্ছে চাকমা রাণী

রাঙামাটি প্রতিনিধি: চাকমা রাণী ইয়েন ইয়েন সাম্প্রদায়িক উস্কানী দিচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছে পার্বত্য বাঙালী ছাত্র পরিষদ। সংগঠনটি জানায়, রাণী একটি গোষ্ঠির জ

লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা কৃষি বিভাগের উদ্যোগে কৃষকদের মাঝে উপকরণ বিতরণ
চেয়ারম্যান প্রার্থী মো: জাকির হোসেন বাবলু নির্বাচিত
খাগড়াছড়ি ইয়েস গ্রুপের নতুন কমিটি গঠন

রাঙামাটি প্রতিনিধি: চাকমা রাণী ইয়েন ইয়েন সাম্প্রদায়িক উস্কানী দিচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছে পার্বত্য বাঙালী ছাত্র পরিষদ। সংগঠনটি জানায়, রাণী একটি গোষ্ঠির জন্য সন্মানের অধিকারী। কিন্তু তিনি তার মর্যাদা ক্ষুন্ন করে একটি বিশেষ মহলের স্বার্থে পাহাড়ে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গাসহ দেশ বিরোধী ঘিরে নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। তার এমন কর্মকান্ডে একদিকে যেমন রাণীর মান মর্যাদা ক্ষুন্ন হচ্ছে অপরদিকে শান্তির পাহাড়ে অশান্তির আগুন জ্বেলে দিচ্ছে। ৬ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে জেলা শহরের পৌরসভা এলাকায় দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সন্মেলনের মাধ্যমে সংগঠনটি এসব কথা বলেন ।

সংগঠনটি জানায়, চলতি বছরের ২২ জানুয়ারী নির্যাতিত দুই কিশোরী চিকিৎসার জন্য রাঙামাটি সদর হাসপাতারে ভর্তি হয় এবং ২৬জানুয়ারী ওই দুই কিশোরী চিকিৎসা শেষে মা-বাবার সাথে চলে যাওয়ার চেষ্টা করলে ওইদিন দুপুরে রাণী এবং তার সহযোগী জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সদস্য বাঞ্চিতা চাকমা, পাহাড়ি নারী নেত্রী সুষ্মিতা চাকমা, নেলী প্রু মারমা হাসপাতালে  হাজির হয়ে ওই দুই কিশোরী থেকে তাদের ইচ্ছেমত স্টেটমেন্ট নিয়ে রাণী ওই দুই কিশোরীকে তার জিম্মায় নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চালায়। বিলাইছড়ি উপজেলার দুই কিশোরী নির্যাতনের ঘটনাকে রাণী ভিন্নদিকে প্রবাহিত করতে হীন ষড়যেন্ত্রে লিপ্ত বলে সংগঠনটি জানান।

সংগঠনটি  বলেন, বর্তমানে ওই দুই কিশোরীর ঘটনাটি  বর্তমানে  বিজ্ঞ আদালতে মামলা চলছে। এছাড়া পাহাড়ে আরো হত্যা কান্ড সংগঠিত হয়েছে এ ঘটনায় রাণীর কোন প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি অথচ যে ঘটনাটি আদালতে বিচারাধীন রয়েছে এ বিষয়টি নিয়ে রাণীর এমন কান্ড আইনের পরিপন্থি। তাই অভিলম্বে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার উস্কানীর এবং দেশ বিরোধী কর্মকান্ডে লিপ্ত থাকার অভিযোগে রাণী ইয়েন ইয়েনকে আইনের আওতায় আনার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবি জানান সংগঠনটি। সংবাদ সন্মেলনের মাধ্যমে সংগঠনটি কয়েকটি কর্মসূচি ঘোষণা করে- চলতি বছরের ১৩ ফেব্রুয়ারী রাঙামাটিতে মানববন্ধন, ১৯ ফেব্রুয়ারী জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবের স্মারকলিপি এবং ২৭ফেব্রুয়ারীর মধ্যে রাণী ইয়েন ইয়েন যদি সাম্প্রদায়িক কর্মসূচি বন্ধ না করে তাহলে পরেরদিন থেকে পাহাড়ে বিক্ষোভ, অবরোধ এবং হরতালে মতো কর্মসূচি পালন করা হবে বলে জানানো হয়।

সংবাদ সন্মেলনে এসময় পার্বত্য নাগরিক পরিষদের আহবায়ক বেগম নূর জাহান, পার্বত্য বাঙালী ছাত্র পরিষদের সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর আলম, সহ-সভাপতি কামাল উদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক মো. হাবিবুর রহমান এবং ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদক নার্গিস আক্তারসহ সংগঠনটির অন্যান্য নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।