চট্টগ্রাম সংবাদশিরোনামস্লাইড নিউজ

ফটিকছড়িতে গৃহবধুকে হত্যার অভিযোগ

ফটিকছড়ি প্রতিনিধি: ফটিকছড়ি উপজেলার পাইন্দং গ্রামে মুছাম্মৎ রনি আকতার (১৯) নামের এক গৃহবধুকে নির্যাতনের পর গলাটিপে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার বেলা তিনটার দিকে হাসপাতাল থেকে তার লাশ উদ্ধার করে ফটিকছড়ি থানা পুলিশ। নিহত রনি আকতার উপজেলার দক্ষিণ পাইন্দং গ্রামের নুরুল আমিন ফোরম্যানের বাড়ির জহুর আহাম্মদের মেয়ে।

নিহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ১১ মাস আগে ওই পাইন্দং গ্রামের প্রবাসী আবুল কালামের সাথে রনি আকতারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে ওই পরিবারে শাশুরী ও জায়ের সাথে তার বনিবনা হচ্ছিল না। এ নিয়ে একাধিকবার কথা কাটাকাটি এবং পারিবারিকভাবে মনোমালিন্য হয়। নিহত রনি আকতারের ভাই মুহাম্মদ ওসমান অভিযোগ করে বলেন, স্বামী আবুল কালাম তিন মাস আগে বিদেশ থেকে দেশে আসে। এরপর থেকে স্বামী, শাশুড়ি এবং তার পরিবারের লোকজন রনির কাছে যৌতুকের টাকার জন্য চাপ দিতে থাকে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে স্বামী আবুল কালাম জানায় রনি গলায় ফাঁস দিয়েছে। তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। খবর পেয়ে তারা হাসপাতালে এসে দেখেন রনির লাশ। তিনি আরো বলেন, রনির শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত ও গলায় আঙ্গুলের চাপের চিহ্ন রয়েছে। স্বামী, শাশুরী ও তার পরিবারের লোকজন আমার বোনকে মারধর করে গলাটিপে হত্যা করেছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

ফটিকছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাকির হোসইন মাহমুদ জানান, খবর পেয়ে পুলিশ হাসপাতাল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে নিয়ে আসা হয়েছে। লাশের গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এখনো কেউ অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।