শিরোনামস্লাইড নিউজ

ফটিকছড়িতে হাত-পা বাধা অবস্থায় লাশ উদ্ধার

ফটিকছড়ি প্রতিনিধি: ফটিকছড়ি সদরের পৌরসভা এলাকার মঈন উদ্দিন (২৭) নামে এক যুবককে হত্যার পর হাত পা বেধে লাশ পুকুরে ফেলে দেয় দুবৃর্ত্তরা। বুধবার (১০ জানুয়ারি) সকালে পৌরসভার ২ নম্বর দক্ষিণ রাঙ্গামাটিয়া এলাকার পুকুর থেকে তার উদ্ধার করেছে পুলিশ।

ফটিকছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাকির হোসাইন মাহমুদ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মঙ্গলবার দুপুরের দিকে বাড়ি থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হন মঈন উদ্দিন। সন্ধ্যায় তার পরিবার নিখোঁজের বিষয়টি থানায় জানায়। ১০ ডিসেম্বর বুধবার সকালে এলাকার লোকজন পৌরসভার টিএন্ডটি অফিসের পাশে একটি পরিত্যাক্ত পুকুরে হাত পা বাধাবস্থায় তার লাশ ভাসতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে পুলিশ গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করেছে। ধারণা করা হচ্ছে তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।

এলাকাবাসী জানায়, নিহত যুবক মঈন উদ্দিন কোন রাজনীতির সাথে জড়িত ছিল না। সে পাইপ ফিটারের কাজ করতো। সে উপজেলার দক্ষিণ রাঙ্গামাটিয়া রমজান আলী মুন্সিবাড়ির মৃত আব্দুল হকের ছেলে।

ফটিকছড়ি থানা পুলিশ বলছে মাঈন উদ্দিনকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয়েছে। ছুরিকাঘাতে তার পেটের নাড়ি ভূড়ি বেরিয়ে গেছে।