ফেনীতে অপহৃত লক্ষ্মীছড়ির মংচিউ মারমা’র খোঁজ মিলেছে

স্টাফ রিপোর্টার: মংচিউ মারমা(২২)। খাগড়াছড়ির লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার মাষ্টার পাড়ার চিংথোয়াই মারমা ছেলে। চাকুরি করেন ফেনীর একটি ব্যক্তি মালিকানাধীন পোল্ট্রি খামারে।

১৯ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার অপহৃত হয়েছেন এমন খবর জানাতে নিজ মোবাইল থেকে বাবা চিংথোয়াই মারমার কাছে কল করে ছেলে মংচিউ মারমা। অপরণকারিরা মুক্তিপণ দাবি করে ৫০হাজার টাকা। অপহরণ ঘটনায় জড়িত তারেক ও মিলনও কথা বলে চিংথোয়াই মারমার সাথে। মুক্তিপণ না দিলে মেরে ফেলা হবে এমন হুমিকও দেয়া হয়। পরে নিরুপায় হয়ে ২৫হাজার টাকা বিকাশ করে ছেলের মোবাইলেই। সেখান থেকে ১৫হাজার টাকা ক্যাশআউট করে টাকা তুলে নেয় অপহরণকারীরা। বাকি টাকা পূণরায় ক্যাশ আউট করতে গিয়ে ভুল পিনকোড একাধীকবার ব্যবহার করলে একাউন্ট বøক হয়ে যায়।

এরি মধ্যে অপরণ খবর ছড়িয়ে পড়লে ফেনী থানা পুলিশ তৎপর হয়ে ওঠে, নামে উদ্ধার অভিযানে। এক পর্যায় বাধ্য হয় মংচিউ মারমাকে ছেড়ে দিতে। বৃহস্পতিবার দুপুরে লক্ষ্মীছড়িতে নিজ বাসায় এসে পৌছায় মংচিউ মারমা। সাংবাদিকদের কাছে এসব কথাগুলোই বলছিলেন মাষ্টার পাড়ার অংথোয়াই মারমা। মংচিউ মারমা সম্পর্কে কাকা। বাবার থেকে টাকা নেয়ার জন্যই অপহরণ নাটক সাজায় বলে জানান, অংথোয়াই মারমা। মংচিউ মারাম এ প্রতিবেদককে জানান, আমি নিজে থেকেই লুকিয়ে ছিলাম। আর কোনো ঘটনা নেই। টাকা নেয়ার জন্যই অপহরণ ঘটনা ঘটিয়েছি বলে জানান মংচিউ মারমা। ফেনীর বোগদাদিয়া পুলিশ ফাড়ির এসআই সৌরজিৎ বড়–য়া বলেন, ঘটনাটি এখনো তদন্ত করা হচ্ছে। জিগ্যাসাবাদের জন্য তারেক ও মিলন নামে ২জনকে আটক করা হয়েছে। বাদী পক্ষের কোনো অভিযোগ পাওয়া যায় নি।

ল²ীছড়ি থানার এসআই মো: কামাল উদ্দিন জানান, ঘটনাটি জানার সাথে সাথে পুলিশি তৎপরতা শুরু হয়। মংচিউ মারমা বাবার থেকে টাকা নেয়ার জন্যই অপহরণ নাটক সাজায়। আমরা প্রকৃত ঘটনা জানার জন্য তাকে থানায় নিয়ে এসেছি। পরে মা-বাবার জিম্মায় বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে বলে জানা তিনি। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এ ঘটনায় কোনো অভিযোগ কিংবা মামলা করা হয় নি বলে জানা গেছে।

Read Previous

মাটিরাঙ্গায় আওয়ামীলীগের সমাবেশ অনুষ্ঠিত

Read Next

মানিকছড়িতে ৪০ লিটার চোলাই মদ জব্দ, ৩ পাচারকারী আটক