• June 23, 2024

বাসন্তি চাকমার অপসারণের দাবিতে সভা, সামবেশ অব্যাহত

আলমগীর হোসেন: সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য বাসন্তি চাকমার জাতীয় সংসদে পার্বত্য চট্টগ্রামে নিয়োজিত সেনাবাহিনী ও বাঙালিদের নিয়ে মিথ্যাচারের প্রতিবাদের আগুনে জ্বলছে পাহাড়। আজও সংসদ সদস্য পদ থেকে তাকে অপসারণের দাবিতে খাগড়াছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল, কুশপুত্তলিকা দাহ ও সমাবেশ করেছে বিক্ষুদ্ধ জনতা।

সমাবেশ থেকে বাসন্তী চাকমার বক্তব্যকে রাষ্ট্র-দেশপ্রেমিক সেনাবাহিনী বিরোধী, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত আখ্যায়িত করে তাকে অপসারণে ৭২ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়ে অন্যথায় লাগাতার ৭২ ঘন্টা হরতাল-অবরোধ কর্মসূচি পালনের হুমকি দেওয়া হয়। এ সময় সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

বৃহস্পতিবার (৭ মার্চ) সকালে পার্বত্য অধিকার ফোরামের ব্যানারে খাগড়াছড়ি শহরের চেঙ্গী স্কয়ার থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহরের একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহরের প্রধান সড়ক ঘুরে পৌর শাপলা চত্বরে পার্বত্য চট্টগ্রামের সংরক্ষিত নারী আসনের সাংসদ বাসন্তী চাকমার কুশপুত্তলিকায় ঝাড়ু-জুতা পেটা শেষে দাহ করা হয়।

পরে শাপলা চত্বরে আয়োজিত সমাবেশে বক্তারা বলেন, বর্তমান সরকারের ধারাবাহিক উন্নয়নে যখন পাহাড়ে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বিরাজ করছে তখন সংসদে বাসন্তী চাকমা পার্বত্য অঞ্চল নিয়ে উগ্র-সাম্প্রদায়িক বক্তব্য দিয়ে তা নষ্ট করার পায়তারা চালাচ্ছে।

সমাবেশ থেকে বাসন্তী চাকমাকে স্বেচ্ছায় ক্ষমা চেয়ে বক্তব্য প্রত্যাহার, আওয়ামী লীগ থেকে বহিস্কার ও সকল রাষ্ট্রীয়-সামাজিক কার্যক্রম থেকে নিষিদ্ধসহ চার দফা দাবি জানানো হয়।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন পার্বত্য অধিকার ফোরামের কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. মাঈন উদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক এস এম মাসুম রানা, কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক সাদ্দাম হোসেন ও বৃহত্তর পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদের জাহিদুল ইসলাম।

বক্তারা বলেন, বাসন্তী চাকমা পার্বত্য অঞ্চলের ঘটে যাওয়া কথিত গণহত্যা নিয়ে মহান জাতীয় সংসদে মিথ্যা তথ্য উপস্থাপন করে এ অঞ্চলের শান্তি সম্প্রীতি হুমকির মুখে ফেলে দিয়েছে।

বক্তারা অভিযোগ করেন, গত ২৬ ফেব্রুয়ারি পার্বত্য চট্টগ্রামের মহিলা সংসদ সদস্য বাসন্তী চাকমা সংসদে দেওয়া বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসরত শতকারা ৫১ শতাংশ বাঙ্গালী সম্প্রদায় ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে নিয়ে অপবাদমূলক, মিথ্য ও বানোয়াট কাহিনী তুলে ধরেছেন। তার বক্তব্যের মূল অংশ ছিলো উগ্র সাম্প্রদায়িক। ১৯৯৬ সালের ১লা মে নিয়ে সংসদে বাসন্তি চাকমা যে বক্তব্য রেখেছেন, তা ছিল সম্পূর্ণ অসত্য। তার কথার কোন ভিত্তি নেই। সেদিন জেলার পানছড়িতে এরকম কোন ঘটনাই ঘটেনি।

প্রসঙ্গত, গত ২৬ ফেব্রুয়ারি তিন পার্বত্য জেলার সংরক্ষিত মহিলা আসনের মনোনীত সংসদ সদস্য বাসন্তী চাকমা জাতীয় সংসদে পার্বত্য চট্টগ্রামের বিভিন্ন ইস্যুতে বক্তব্য রাখেন।

পাহাড়ের আলো

https://pahareralo.com

সর্বাধিক জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল। সর্বশেষ সংবাদ সবার আগে জানতে চোখ রাখুন পাহাড়ের আলোতে।

Related post