খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদপাহাড়ের সংবাদরামগড়শিরোনামস্লাইড নিউজ

মহানবী (সা.)কে কটূক্তি করার প্রতিবাদে রামগড়ে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

রামগড়(খাগড়াছড়ি)প্রতিনিধি: ভারতের বিজেপির ক্ষমতাসীন দলের মুখপাত্র নুপুর শর্মা ও তার সহকর্মী নবীন কুমার জিন্দালি মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)কে অবমাননা ও মুসলমানদের ধর্ম নিয়ে বাঁজে মন্তব্য করার প্রতিবাদে রামগড়ে এক বিশাল বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে রামগড়ের সর্বস্তরের ওলামায়ে কেরাম ও তাহওহিদি জনতা।

“রাসুলের অপমানে যদি না কাঁদে তোর মন, মুসলিম নয় মুনাফিক রাসুলের দূষমন” এ শ্লোগানে শুক্রবার (১০ই জুন) জুমার নামাজের পর রামগড়ের সর্বস্তরের ওলামায়ে কেরাম ও তাহওহিদি জনতা ব‍্যানারে, ধর্মপ্রাণ মুসলমান জনতার অংশ গ্রহনে কেন্দ্রীয় মসজিদ থেকে এক বিক্ষোভ মিছিল বের হয়, এসময় বিভিন্ন মসজিদের মুসল্লিরা মিছিলে যোগদান করেন। মিছিলটি রামগড় পৌর শহরের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট প্রদক্ষীণ শেষে, রামগড় ঈদগাঁহ্ ময়দানে এসে এক প্রতিবাদ সমাবেশে মিলিত হন।

রামগড় উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ আনোয়ার ফারুকের সভাপতিত্ব ও মাওলানা আব্দুল হান্নান মানসুরের সঞ্চালনায় সমাবেশে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন রামগড় উপজেলা ওলামা ঐক্য পরিষদের সভাপতি মাওলানা মহিববুল্লাহ,আল-জামিয়া বাবুনগর মাদ্রাসার মুহাদ্দিস আল্লামা মুফতি মীর হোসেন, রামগড় কেন্দ্রীয় মসজিদের খতিব মাওলানা আব্দুল হক,রামগড় ফাজিল মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল হাই নিজামী,শেষ বিদায়ের বন্ধু সংগঠনের সভাপতি মাওলানা মোঃশহিদুল্ল‍্যাহ,ফেনীরকুল নুরুল কুরআন মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা দেলোয়ার হোসেন,বলিপাড়া মাদ্রাসার খতিব মাওলানা নুরুল আমীন,সভাপতি মাওলানা হাফেজ জুনাইদ বিন সাঈদ, ইসলামি যুব আন্দোলন,রামগড়,উঃগর্জনতলী মসজিদের খতিব ক্বারী এরশাদ উল্লাহ,কোর্ট মসজিদ খতিব মাওলানা আক্তার হোসেন জিহাদি,কালাডেবা মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা ইমাম উদ্দিন আজীজি ও সার্বিক সহযোগীতায় মাওলানা সাইফুল ইসলাম, প্রতিনিধি মডেল মসজিদ পাঠাগার, ইসলামী ফাউন্ডেসন রামগড় সহ বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে বিভিন্ন মুসলিম সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পরে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ শেষে বিক্ষুব্ধ জনতা বলেন, আমরা হিন্দু ধর্মাবলম্বিদের বিরোদ্ধে নয় শুধুমাত্র ভারতের ক্ষমতাশীন বিজেপি দলের মুখপাত্র নূপুর শর্মা ও মিডিয়া সেল প্রধান নবীন জিন্দাল’র বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাচ্ছি। পরে তাদের ছবি আগুনে পুড়িয়ে নিন্দা জানান ও বিশ্ব মুসলিম নেতাদের কাছে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে কটূক্তি ও অবমাননা এবং মুসলমানদের ধর্ম নিয়ে বাজে মন্তব্য করার দায়ে দোষীদের আইনের আওতায় এনে কঠিন শাস্তির দাবী জানান।