খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদপাহাড়ের সংবাদমহালছড়িস্লাইড নিউজ

মহালছড়িতে হিল উইমেন্স ফেডারেশন’র উদ্যোগে আর্ন্তজাতিক নারী দিবস পালন

মহালছড়ি প্রতিনিধি: খাগড়াছড়ির মহালছড়িতে আন্তর্জাতিক নারী দিবসে নারী নির্যাতন বিরোধী প্রতিরোধ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) সমর্থিত হিল উইমেন্স ফেডারেশন। ৮ মার্চ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় বিক্ষোভ মিছিলটি দুরছড়ি মূখ পাড়া থেকে শুরু হয়ে বাস টার্মিনাল হয়ে ঘুরে এসে বাবুপাড়াতে এক সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। বিক্ষোভ সমাবেশে হিল উইমেন্স ফেডারেশন মহালছড়ি উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক ইছামনি চাকমার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন,  গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম খাগড়াছড়ি জেলা শাখার প্রতিনিধি রতন স্মৃতি চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ মহালছড়ি উপজেলা শাখার সভাপতি মেনন চাকমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশন মহালছড়ি উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক পিপি চাকমা, মাইসছড়ি এলাকার  মহিলা কার্বারী মল্লিকা চাকমা প্রমূখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন,  নারীরা আজ ঘরে বাইরে কোথাও নিরাপদ নয়। পার্বত্য চট্টগ্রামসহ সারা দেশে নারী নির্যাতন ব্যাপকহারে বেড়ে গেছে। প্রতিনিয়ত কোথাও না কোথাও নারী নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে।  বক্তারা আরো বলেন, অপারেশন উত্তরণের নামে সেনাশাসন ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের অগণতান্ত্রিক ১১ নির্দেশনা জারি থাকায় পার্বত্য চট্টগ্রামে নিপীড়ন ক্রমাগত বেড়ে চলেছে।  বক্তারা বলেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে নারী দিবস পালন করা হয়। বাংলাদেশেও সরকারীভাবে দিবসটি পালন করা হয়। কিন্তু পার্বত্য চট্টগ্রামে যখন আমরা নারী দিবস পালন করতে যাই তখন সেনাবাহিনী-পুলিশ বাধা দিয়ে, লাঠিচার্জ ও নেতাকর্মী আটক করে।

বক্তারা বলেন, ১৯৯৬ সালে কল্পনা চাকমাকে অপহরণকারী এবং সাম্পতিকালে রাঙামাটির বিলাইছড়িতে দুই মারমা বোনকে ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়নকারীদের এখনো বিচারের আওতায় আনা হয়নি। ফলে এসব অপরাধীরা অতি উৎসাহী হয়ে চাকমা রাণী ইয়েন ইয়েনকেও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত ও হাসপাতাল থেকে নির্যাতিত দুই বোনকে অপহরণ করার সাহস পেয়েছে।

বক্তারা নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার জন্য নারী সমাজসহ সর্বস্তরের জনগণের প্রতি আহ্বান জানান।
সমাবেশ থেকে বক্তারা অবিলম্বে বিলাইছড়ির দুই মারমা বোনের ধর্ষণ-নির্যাতনকারীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক সাজা এবং পার্বত্য চট্টগ্রামসহ সারা দেশে নারী নির্যাতন বন্ধ করে সকল ক্ষেত্রে নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জোর দাবি জানান