খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদপাহাড়ের সংবাদমাটিরাঙ্গাশিরোনামস্লাইড নিউজ

মাটিরাঙ্গা পৌরসভা নির্বাচন প্রচারণা শেষ, থাকছে র‌্যাবসহ ৪স্তরের নিরাপত্তা বলয়

কেন্দ্র দখলের অভিযোগ এনে বিএনপির সংবাদ সম্মেলন

স্টাফ রিপোর্টার: মাটিরাঙ্গা পৌরসভা নির্বাচনের শেষ মূর্হুতের প্রচার প্রচারণায় মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা ছিলেন অনেকটাই ব্যস্ত। প্রচার প্রচারণা শেষ। চলছে শেষ হিসেবে নিকেশ। মাটিরাঙ্গা পৌর নির্বাচনে যথারীতি জাতীয় নির্বাচন কমিশনের আচরণবিধি অনুসারে শুক্রবার রাত ১২টা থেকে নির্বাচনের সকল ধরণের প্রচারণা মিছিল মিটিং সমাবেশ বন্ধ থাকবে। উপজেলা নির্বাচন কমিশন কর্তৃক ভোটগ্রহণের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। নির্বাচনী সহিংসতা রোধে নেয়া হয়েছে র‌্যাব, বিজিবি, পুলিশ ও আনসার-ভিডিপিসহ ৪ স্তরের নিরাপত্তা বলয়। এছাড়া ৯টি কেন্দ্রের জন্য ৯জন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট নির্বাচন কালীন দায়িত্ব পালন করবেন বলে জানা গেছে।

মাটিরাঙ্গা পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে ৩ জন। ৩টি সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৬জন। ৯টি সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৪০ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে জয়নাব বিবি বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়াই করছেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি বর্তমান মেয়র মো. সামছুল হক। মাটিরাঙ্গাা পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বিএনপির মনোনিত প্রার্থী মোঃ শাহজালাল কাজল লড়ছেন ধানের শীষ প্রতীক। মোবাইল প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মাঠে আছেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এম এম জাহাঙ্গীর আলম।

এদিকে মাটিরাঙ্গা পৌর নির্বাচন প্রভাবিত ও কেন্দ্র দখলের চেষ্টার অভিযোগ করেছে বিএনপি। শুক্রবার সকালে মাটিরাঙ্গা বিএনপির কার্যালয়ে মেয়র প্রার্থী মো: শাহ জালাল কাজলের আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ করা হয়।

খাগড়াছড়ি সাবেক এমপি জেলা বিএনপির সভাপতি ওয়াদুদ ভূইয়া লিখিত বক্তব্যে বলেন, নির্বাচনের দিন ৯ কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন দলের সাবেক কর্মীদের প্রিজাইডিং সহ সংশ্লিষ্ট কাজে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি কেন্দ্র দখলসহ ভোটারদের প্রভাবিত করা হচ্ছে। এসব অভিযোগ লিখিত ভাবে রিটার্নিং কর্মকর্তাকে জানানো হলেও এখনও কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। সংবাদ সম্মেলনে জেলা ও উপজেলা বিএনপির সিনিয়র নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

মাটিরাঙ্গা পৌরসভা নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা রাজু আহমেদ জানান, নির্বাচনী সহিংসতা রোধে নেয়া হয়েছে ৪ স্তরের নিরাপত্তা। তাছাড়া ৯টি কেন্দ্রের জন্য ৯জন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সার্বক্ষনিক দায়িত্ব পালন করবেন বলে জানান তিনি।

মাটিরাঙ্গা পৌর সভায় মোট ভোটার সংখ্যা ১৮ হাজার ৯৬৫ জন। পুরুষ ভোটার ৯ হাজার ৮০৬ জন এবং নারী ভোটার ৯ হাজার ১৫৯ জন। মাটিরাঙ্গা পৌরসভা নির্বাচনে ৯টি ভোট কেন্দ্রে ৫৫টি বুথে ভোট গ্রহণ করা হবে ব্যালটের মাধ্যমে।