খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদপাহাড়ের সংবাদমানিকছড়িশিরোনামস্লাইড নিউজ

মানিকছড়িতে যুবলীগ নেতা ইমান’র সন্ধান মিলেনি এখনো, মোটরসাইকেল উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার: মানিকছড়ি উপজেলার তিনটহরী ইউনিয়ন যুবলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ইমান হোসেনকে (২৮) শনিবার রাত আনুমানিক ৯টা থেকে নিখোঁজ রয়েছে। পুলিশ ইমানের বাড়ির অদূরে একটি জঙ্গল থেকে তাঁর ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করেছে। তাঁকে উদ্ধারের জোর দাবি জানিয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ। নিখোঁজ যুবলীগ নেতা ইমান’ হোসেন মানিকছড়ি সদর ইউপি চেয়ারম্যান সফিকুর রহমান ফারুকের ভাতিজা বলে জানা গেছে। সফিকুর রহমান ফারুক গণমাধ্যমে কথা না বললেও ভাতিজাকে সম্পূর্ণ সুস্থ্য অবস্থায় ফিরে পেতে প্রশাসনের কাছে জোড় দাবি জানিয়েছেন।
নিখোঁজ ইমান হোসেনের ছোট ভাই কলেজ ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক মো. আকতার হোসেন বলেন, আমার ভাই ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ইমান হোসেন একজন সহজ-সরল ও শান্তিপ্রিয় মানুষ। কারও সঙ্গে তাঁর ব্যবসায়িক ও রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব কিংবা বিবাদ নেই। কে বা কারা কোন উদ্দেশ্যে তাঁকে অপহরণ করল তা জানি না। অক্ষত অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার চাই।  এ ঘটনায় সরাসরি কাউকে দায়ী না করলেও পাহাড়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টে থাকা আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলগুলোকে সন্দেহ করছে নিখোঁজের পরিবার।
আকতার আরও জানান, প্রতিদিনের মতো শনিবার রাতে বাজার থেকে ফেরার আগে স্ত্রীকে ফোন দিয়ে ইমান জানতে চান বাসায় কী লাগবে। প্রয়োজনীয় জিনিস কিনে বাড়িতে রওনা দিলেও সকাল পর্যন্ত ঘরে না পরিবার তাঁর ফোনে ও আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে খোঁজ-খবর নেওয়া হয়। এভাবে সন্ধান না পেয়ে সকালে বাজারে যাওয়ার রাস্তার পাশে জঙ্গলে মোটরসাইকেলটি দেখতে পেয়ে পুলিশকে জানানো হয়। ইমানের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। তিনি বড়বিল এলাকার মো. রমিজ মিয়ার ৩ ছেলে ও ২ মেয়ের মধ্যে সবচেয়ে বড়।
মানিকছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহনূর আলম নিখোঁজের বিষয়ে বলেন, পারিবারিকভাবে বিষয়টি অবহিত হয়ে নিখোঁজ ব্যক্তির মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। গভীরভাবে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত নিখোঁজ ব্যক্তির পক্ষে কেউ লিখিত অভিযোগ করেনি বলেও তিনি উল্লেখ করেন।
এদিকে যুবলীগ নেতা নিখোঁজের খবর ছড়িয়ে পড়লে তাঁর বাড়ি বড়বিলে আত্মীয়-স্বজন ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ছুটে যান। এ সময় তাঁর চাচা সদর ইউপি চেয়ারম্যান মো. শফিকুর রহমান ফারুক ও উপজেলা চেয়ারম্যান এবং আওয়ামী লীগ সভাপতি মো. জয়নাল আবেদীন সবাইকে সান্ত্বনা দেন। বিষয়টি মৌখিকভাবে পুলিশ ও সেনাবাহিনীকে জানানো হয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। এ নিয়ে প্রশাসন কাজ করছে বলে সবাইকে ধৈর্য ধারণের অনুরোধ করেন তিনি।
এদিকে পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের খাগড়াছড়ি জেলা কমিটির সহসভাপতি মো. মোকতাদের হোসেন এক বিজ্ঞপ্তিতে ইমান হোসেনকে উদ্ধারে জোর দাবি জানিয়েছেন।
সবশেষ খবর জানতে যোগাযোগ করা হলে আমাদের মানিকছড়ি প্রতিনিধি মিন্টু মারমা জানান, সকাল থেকেই পরিবারর লোকজন বিভিন্ন এলাকায় খোঁজ খবর নিচ্ছে। রাত সাড়ে ১০টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোনো সন্ধান মিলেনি। তবে পুলিশ ও আইনশৃঙ্খলাবাহিনী মৌখিকভাবে অবগত হয়ে উদ্ধার তৎপরতা চালাচ্ছন।