মানিকছড়িতে এক গৃহবধুর রহস্যজনক খুন, স্বামী রক্তাক্ত

স্টাফ রিপোর্টার: খাগড়াছড়ি জেলার মানিকছড়িতে এক গৃহবধুর রহস্যজনক খুন হয়েছে। স্বামী রক্তাক্তাবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি। স্বামী-স্ত্রীর এমন রহস্যজনক ঘটনার তথ

করোনা মোকাবেলায় খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে ৩০ বেডের আইসোলেশন প্রস্তুত
খাগড়াছড়িতে ঐতিহাসিক জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালিত
রামগড়ে নবনির্বাচিত পৌর মেয়র ও কাউন্সিলরদের শপথ গ্রহণ

স্টাফ রিপোর্টার: খাগড়াছড়ি জেলার মানিকছড়িতে এক গৃহবধুর রহস্যজনক খুন হয়েছে। স্বামী রক্তাক্তাবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি। স্বামী-স্ত্রীর এমন রহস্যজনক ঘটনার তথ্য উদঘাটনে কাজ শুরু করেছে পুলিশ।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার নামার তিনটহরী গ্রামের মো. মমতাজ উদ্দীনের ৫ ছেলে ও ১ মেয়ের সংসারে মেজ ছেলে মো. বেলাল হোসেন(২৬) পিতার বসতবাড়ীর অদূরে পাহাড়ের চুড়ায় স্ত্রীকে নিয়ে বসবাস করত এবং মোটরসাইকেল চালিয়ে সংসার চালাত। তবে সম্প্রতি কালে বেলাল হোসেন ইয়াবা সেবন ও পাচারের কাজে জড়িয়ে পড়ে। এ নিয়ে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে মনমালন্য ছিল। এ নিয়ে একাধিক বিচার সালিস ও হয়েছে।

৩১ জুলাই দিবাগত রাত আনুমানিক আড়টার দিকে তাদের বাড়িতে চিৎকার শুনতে পেয়ে বেলালের পিতা মমতাজ ও ছোট ভাই সাগর হোসেন সেখানে ছুঁটে যায়। তারা সেখানে গিয়ে দেখেন যে বেলাল হোসেন এবং তার স্ত্রী সালমা আক্তার(২২) রক্তাক্তাবস্থায় উঠানে পড়ে ছটপট করছে। পরে তারা আহত দু’জনকে উদ্ধার করে মানিকছড়ি হাসপাতালে এসে ভর্তি করান। চিকিৎসক চিকিৎসা শুরু করতে না করতেই স্ত্রী সালমা আক্তার(২২) মৃত্যুবরণ করেন। পরে আহত বেলাল হোসেনকে চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করেন। চিকিৎসক ডা. মহিউদ্দীন জানান, নিহতের গলায় ও পেটে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। প্রচুর রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়েছে। অপরদিকে বেলাল হোসেন অনেকটা আশংকামুক্ত। তবে তার উন্নত চিকিৎসার জন্য চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ রশীদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে রাতেই আমি পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়েছি। ঘটনার প্রকৃত রহস্য খুঁজে বের করতে পুলিশ কাজ শুরু করেছে। এদিকে নিহত সালমা আক্তারের লাশ ময়না তদন্তের জহন্য জেলা হাসপাতালের প্রেরণ এবং ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।